লম্বা ছুটিতে মহামারি মানুষের জীবনকে ছুটি দিয়ে দিচ্ছে

মো: হারুন অর রশিদ, কুষ্টিয়া । ২৫ এপ্রিল,২০২০ ৭২ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ ()

কর্মজীবি মানুষ ছুটি চায়। ছুটি উপভোগ করে। মহামারি করোনার সৌজন্যে মানুষ এবার লম্বা ছুটি পেয়েছে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে করোনার সংক্রমণ, মহামারি, আগামীর অনিশ্চয়তা, মৃত্যুর মিছিল, দুর্ভিক্ষের পদধ্বনি- এর কোনো কিছুর আঁচ তাদের গায়ে লাগছে না। বাঙালি আছে ছুটির মেজাজে! উৎসবের আমেজে! শহরের বড় রাস্তাগুলো কিছুটা ফাঁকা। কিন্তু পাড়া-মহল্লায় গলির মুখে আড্ডা চলছে। হাট-বাজারের যে অবস্থা তা দেখে মনে হয়, রমজানের আগেই ‘ঈদ’ এসে পড়েছে! শহর থেকে গ্রাম এই চিত্র ভিন্ন কিছু নয়।

করোনা আক্রান্ত কত মানুষকে প্রতিদিন জীবন তাদের ছুটি দিয়ে দিচ্ছে; টেলিভিশনের পর্দায় সেই চিত্র দেখানো হচ্ছে। মানুষের জীবন বাঁচাতে গিয়ে কত ডাক্তার-স্বাস্থ্যকর্মী প্রতিদিন ঢলে পড়ছেন মৃত্যুর কোলে! চিকিৎসক স্বামীর লাশ পড়ে আছে, পিপিই পরে দূরে দাড়িয়ে দেখতে হচ্ছে স্ত্রীকে! শেষবিদায় জানানোর সময়ও কাছে গিয়ে দুফোটা চোখের জল ফেলার সুযোগ মিলছে না! কী নিদারুণ এক সময়ের মুখোমুখি আজ মানুষ । আজ দারুন এক দুর্দীনে মানুষ । কার জীবন কখন থেমে যায় তা আমরা কেউ জানি না।

Sun

01:21

Copy video url

Play / Pause

Mute / Unmute

Report a problem

Language

Mox Player

আমরা শিক্ষক । শিক্ষা আলোকিত সমাজ বিনির্মাণে হাতিয়ার। একজন শিক্ষক হলো সমাজ গঠনের সুনিপুণ কারিগর। শিক্ষা ছাড়া আলোকিত মানুষ সৃষ্টি কোনোভাবেই সম্ভব নয়। একজন শিক্ষকের কিছু কাজ ও দায়বদ্ধতা আছে। এ দায়বদ্ধতা সহকর্মীদের কাছে, সমাজের কাছে, দেশ ও জাতির কাছে, আগামী প্রজন্মের কাছে। একজন সফল মানুষের পেছনে শিক্ষকের গুরুত্বপূণর্ ভুমিকা থাকে। শিক্ষক শুধু সফল নয়, একজন ভালো মানুষ হতে শেখান। মানবিক বিপযর্য় বা বৈশ্বিক, অথৈর্নতিক সংকটে আক্রান্ত হয়েও সামাজিক, অথৈর্নতিক ও বুদ্ধিবৃত্তিক বিনির্মাণে শিক্ষকরা অবিরাম ভুমিকা রেখে চলেছেন। শিক্ষক হচ্ছেন সভ্যতার ধারক-বাহক।

মহামারি করোনার কারনে মানব সভ্যতা আজ হুমকির মুখে । হুমকি মুখে কোমলমতি শিক্ষার্থী ও শিক্ষা । শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ,  নেই  হোমওয়ার্ক,  নেই  কোচিংয়ে  যাওয়ার  তাড়া গৃহশিক্ষকেরও  আপাতত  বিরতি প্রাত্যহিক  পাঠাভ্যাস  ছুটির শুরুর দিকে যা- ছিল, এখন  ঢিলেমি অনেক দিন হয়ে গেল এভাবেই চলছে এভাবে  একটানা  পড়ালেখা  থেকে  বিরত  থাকতে  থাকতে  বইবিমুখ হয়ে যাচ্ছে শিক্ষার্থীরাআসুন যার যার অবস্থান থেকে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় মনোনিবেশ করতে সহায়তা করি । ছুটির দিনগুলোতে পাঠপরিকল্পনা করি, সময় উপযুক্ত কন্টেন্ট তৈরী করি । ভর্তি ফরমে প্রাপ্ত মোবাইল নম্বরে ফোন দিয়ে সপ্তাহের পড়া দেওয়া ও তা নেয়ার জন্য অভিভাবকদের সম্পৃক্ত করি ।সংসদ টিভির ক্লাসে তাদের সম্পৃক্ত করার চেষ্টা করি ।শিক্ষক বাতায়ন, কিশোর বাতায়ন ও কিশোর কানেক্ট এ তাদের ক্লাস দেখায় উৎসাহিত করি । শিক্ষা বাচলে দেশ বাচবে । বাড়বে শিক্ষকের সম্মান

 

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মো: হারুন অর রশিদ, কুষ্টিয়া ।
২৮ এপ্রিল, ২০২০ ০৩:৫৭ পূর্বাহ্ণ

সবাইকে শুভ কামনা রইল


অজয় কৃষ্ণ পাল
২৫ এপ্রিল, ২০২০ ০৬:৩০ অপরাহ্ণ

শ্রদ্ধেয় প্যাডাগজি স্যার, রেটার মহোদয়, সেরা কনটেন্ট নির্মাতাগণ, বাতায়নের সকল স্যার- ম্যাম ও আইসিটি জেলা এম্বাসেডর মহোদয়গণ আমার উদ্ভাবনী গল্পটি দেখার ও পূর্ণ রেটিং সহ গঠনমূলক মতামতের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। আপনাদের সহযোগীতা পেলে সুন্দর , শ্রেণি উপযোগী ও মানসম্মত কনন্টেন্ট উপহার দিয়ে শিক্ষক বাতায়ন কে আরো সমৃদ্ধি করার চেষ্টা করব। শিক্ষক বাতায়ন আই ডি: ajoy.cbmhs https://www.teachers.gov.bd/content/details/559502 https://www.teachers.gov.bd/content/details/560580


মুহাম্মাদ আলীমুদ্দীন
২৫ এপ্রিল, ২০২০ ০৪:৫০ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা রইল ।শ্রেনী উপযোগী ও মান সম্মত কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য ধন্যবাদ।