অপরূপ সৌন্দর্য দ্বীপ সেন্ট মার্টিন ও তার সংক্ষিপ্ত পরিচিত

মোঃ ফয়জুল হক ১১ জুলাই,২০২০ ৭৪ বার দেখা হয়েছে লাইক ১০ কমেন্ট ৫.০০ ()

সেন্ট মার্টিন বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার অঅন্তর্গত টেকনাফ উপজেলার একটি ইউনিয়ন।  এটি একটি বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ। এর অপর নাম নারকেল জিঞ্জিরা।  এর আয়তন ৮ বর্গ কিলোমিটার।  প্রচুর নারকেল পাওয়া যায় বলে এ নামটি অনেক আগে থেকেই পরিচিত হয়ে আসছে । চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক শেখ বখতিয়ার উদ্দিন এর গবেষণা থেকে জানা যায়, প্রায় ৫০০ বছর আগে টেকনাফের মূল ভূমির অংশ ছিল জায়গাটি। কিন্তু ধীরে ধীরে এটি সমুদ্রের নিচে চলে যায়। এর পর প্রায় ৪৫০ বছর আগে বর্তমান সেন্ট মার্টিন দ্বীপের দক্ষিণ পাড় জেগে উঠে।  এর ১০০ বছর পর উত্তর পাড় এবং পরবর্তী ১০০ বছরের মধ্যে বাকি অংশ  জেগে উঠে।  গবেষক কামাল পাশা জানালেন,২৫০ বছর আগে আরব বণিকদের নজরে আসে দ্বীপটি। তারা এ দ্বীপটির নামকরণ করেছিল 'জাজিরা'। পরবর্তীতে যেটি নারিকেল জিঞ্জিরা নামে পরিচিত হয়।  ১৮৯০ খ্রিষ্টাব্দে কিছু বাঙালি এবং রাখাইন সম্প্রদায়ের মানুষ এই দ্বীপে বসতি স্থাপনের জন্য আসে।  এরা বেছে নিয়েছিলো   এই দ্বীপের উত্তরাংশ। সম্ভবত বাঙালি জেলেদের জলকষ্ট ও ক্লান্তি দূরীকরণের অবলম্বন হিসাবে প্রচুর পরিমান নারিকেল গাছ এই দ্বীপে রোপন করেছিল। কালক্রমে এই দ্বীপটি একসময় 'নারকেল গাছ প্রধান' দ্বীপে পরিণত হয়। এই সূত্রে স্থানীয় অধিবাসীরা এই দ্বীপের উত্তরাংশকে  নারিকেল জিঞ্জিরা নামে অভিহিত করা শুরু করে। ১৯০০ খ্রিষ্টাব্দের দিকে ব্রিটিশ ভূ- জরীপ দল এই দ্বীপটিকে   ব্রিটিশ ভারতের অংশ হিসাবে গ্রহন করে। জরীপে এরা স্থানীয় নামের পরিবর্তে খ্রিষ্টান সাধু মার্টিনের নামানুসারে সেন্ট মার্টিন নাম প্রদান করে।  তবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক শেখ বখতিয়ার উদ্দিন এর মতে, ১৯০০ খ্রিষ্টাব্দে দ্বীপটিকে যখন ব্রিটিশ ভারতের অন্তর্ভুক্ত করা হয়, তখন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মার্টিনের নামানুসারে দ্বীপটির নামকরণ করা হয়। সূত্রঃঃ(bbc.com)। 

দ্বীপটির নৈসর্গিক সৌন্দর্য দেখার ভাগ্য হয়েছিল আমার বন্ধুদের সাথে ২০২০ সালের ২৫ শে ফেব্রুয়ারি মাসে। দিনটিতে আমরা পর্যটক হিসাবে আনন্দ উপভোগ করেছিলাম সত্যিই চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে স্মৃতির পাতায়।   

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মোছাঃ লাকী আখতার পারভীন
১২ জুলাই, ২০২০ ০৫:০২ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ শুভকামনা। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে লাইক, রেটিং ও আপনার সু-চিন্তিত মতামত দেওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইল ।


মোঃ রওশন জামিল
১২ জুলাই, ২০২০ ১১:০৭ পূর্বাহ্ণ

ধন্যবাদ।


মোঃ ফয়জুল হক
১২ জুলাই, ২০২০ ০২:৩৮ অপরাহ্ণ

আপনাকে অশেষ ধন্যবাদ


সুজিত দেব
১২ জুলাই, ২০২০ ০৮:৪৪ পূর্বাহ্ণ

ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন, বাতায়নের সাথে থাকুন। লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ অসংখ্য শুভকামনা । আমার এ পাক্ষিকের ২৮তম ও ২৯তম কনটেন্টগুলো দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও রেটিং প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। আপনার সুস্থতা কামনা করছি।


মোঃ ফয়জুল হক
১২ জুলাই, ২০২০ ০২:৪৫ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার


মোঃ ফয়জুল হক
১২ জুলাই, ২০২০ ০২:৪৫ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার


তাছলিমা আক্তার
১২ জুলাই, ২০২০ ০৫:২০ পূর্বাহ্ণ

আসসালামু আলাইকুম । লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন । ভালো থাকুন , সুস্থ থাকুন , নিজেকে নিরাপদে রাখুন । আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে লাইক ও রেটিংসহ মূল্যবান মতামত প্রদানের অনুরোধ রইল ।https://www.teachers.gov.bd/content/details/627265


মোঃ ফয়জুল হক
১২ জুলাই, ২০২০ ০২:৪৫ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ


মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান (সুমন)
১২ জুলাই, ২০২০ ১২:৩২ পূর্বাহ্ণ

ধন্যবাদ।ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন এবং নিরাপদে থাকুন। মহান মালিক আমাদের সবাইকে হেফাজত করুক।


মোঃ ফয়জুল হক
১২ জুলাই, ২০২০ ০২:৪৬ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার