মিষ্টি আলুর রোগ প্রতিরোধে নতুন দিগন্ত

মোঃ মিজানুর রহমান মিয়া ২৮ সেপ্টেম্বর,২০২১ ১৭ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ ()

মিষ্টি আলু উত্পাদনের বিভিন্ন পর্যায়ে, সংরক্ষণে এবং পরিবহনে অনেক ধরনের রোগে আক্রান্ত হয়। এর মধ্যে ভাইরাস ও ছত্রাক রোগ অন্যতম। আমি মূলত গবেষণা করছি ভাইরাস রোগ কমিয়ে আনা আর ছত্রাক রোগের কারণ নির্ণয়ে। ছত্রাকের কারণে মিষ্টি আলু তিনটি প্রধান রোগে আক্রান্ত হয়। সেগুলো হলো গাছের ঢলে পড়া ও মিষ্টি আলুর পচন, নরম পচা রোগ এবং ব্লু মোল্ড। এ তিনটি রোগের কারণ তিনটি ছত্রাকের বিভিন্ন প্রজাতি। ছত্রাক জীবাণুগুলো হলো যথাক্রমে ফুসারিয়াম (Fusarium), রিজোপাস (Rhizopus) এবং পেনিসিলিয়াম (Penicillium)।

আবিষ্কৃত তথ্য থেকে জানা যায়, ফুসারিয়ামের চারটি প্রজাতি−F. oxysporum, F. solani, F. commune এবং F. denticulatum। এগুলোই মিষ্টি আলুর গাছের ঢলে পড়া এবং পচন রোগ সৃষ্টি করে। কিন্তু আমাদের মলিক্যুলার ও বাহ্যিক বৈশিষ্ট্য পরীক্ষায় দেখা যায়, এর সঙ্গে আরও ২টি প্রজাতি জড়িত। মানে মোট ৬টি ফুসারিয়াম প্রজাতি এই রোগগুলো সৃষ্টি করে। এই রোগটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, কারণ চারা অবস্থা থেকে সংরক্ষণ পর্যন্ত যেকোনো সময় রোগটি বা রোগগুলো হতে পারে। মিষ্টি আলু দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করা যায় না। সাধারণত উন্নত সংরক্ষণাগারে তিন থেকে চার মাস পর্যন্ত সংরক্ষণ করা যায়।কিন্তু মিষ্টি আলু সংরক্ষণের সময় রিজোপাসের দুটি প্রজাতি (R. oryzae, R. stolonifer) সাধারণত রোগ সৃষ্টি করে। এর মধ্যে একটি প্রজাতি (R. oryzae) দক্ষিণ কোরিয়ায় আগে দেখা গেছে। আমরা দেখতে পেয়েছি আরও একটি প্রজাতি (R. microsporus) পচা রোগের জন্য দায়ী। এই রোগটি বহু বছর আগে একবার যুক্তরাষ্ট্রে দেখা গিয়েছিল। আবার মিষ্টি আলু সংরক্ষণে হিমাগারে পেনিসিলিয়ামের সংক্রমণ ঘটে। ফলে মিষ্টি আলুতে দেখা যায় ব্লু মোল্ড রোগ। এত দিন মনে করা হতো, এই রোগের জন্য পেনিসিলিয়ামের P. expansum-কে দায়ী করা হতো। কিন্তু আমরা দেখেছি, পেনিসিলিয়ামের আরও একটি প্রজাতি এ রোগ সৃষ্টি করে। সেই প্রজাতিটির বিস্তারিত মলিকিউলার ও বাহ্যিক গঠন নিরূপণ করতে আমরা সক্ষম হয়েছি। মিষ্টি আলুর আরও একটি রোগ আছে। সেটা Sclerotium rolfsii নামে একধরনের জীবাণুর সংক্রমণে হয়। দক্ষিণ কোরিয়ায় জীবাণুটির বিস্তারিত বৈশিষ্ট্য ও যাবতীয় তথ্য গবেষণার মাধ্যমে বের করেছি আমরা। আমাদের গবেষণার ফল আন্তর্জাতিক বিশ্বের বেশ কয়েকটি জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

উল্লিখিত চার ধরনের জীবাণুর বিভিন্ন প্রজাতির এক বা একাধিক জিনের আংশিক সিকোয়েন্স করা হয়েছে আমাদের গবেষণায়। জিন সিকোয়েন্স ছাড়া আজকের দিনে আন্তর্জাতিক প্রকাশনা হয় না। পৃথিবীখ্যাত জিনব্যাংক হলো National Center for Biotechnology Information। এটি পরিচালনা করে যুক্তরাষ্ট্র সরকার। আমরা ৬৯টি সিকোয়েন্স সেই জিনব্যাংকে জমা করেছি। এগুলো বিজ্ঞানীদের ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত। আমাদের পরবর্তী গবেষণা হচ্ছে কৃষকদের হাতে রোগমুক্ত স্টক তুলে দেওয়া। সেটা করতে পারলে সুস্থ মিষ্টি আলুগাছ পাওয়া যাবে। পরবর্তী ধাপে পরবর্তী বছরে হয়তো ভালো কোনো অগ্রগতি দেখতে পাব।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
আবু নাছির মোঃ নুরুল্লা
২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০৯:৩০ পূর্বাহ্ণ

আসসালামু আলাইকুম। লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইল। আমার আপলোড কৃত কন্টেন্ট দেখে পূর্ণ রেটিং সহ আপনার সুচিন্তিত মতামত আশা করছি।


মোঃ আব্দুর রাজ্জাক
২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০৭:৫২ পূর্বাহ্ণ

Full rating with the best wishes for you.Humble request to see my content and blog and to give constructive feedback so that I can develop the quality of my content. https://www.teachers.gov.bd/content/details/1134109 https://www.teachers.gov.bd/blog-details/622949


আব্দুস সালাম হাওলাদার
২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০৭:৫০ পূর্বাহ্ণ

Best wishes with full ratings.


মোঃ মুজিবুর রহমান
২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০৫:০৫ পূর্বাহ্ণ

অভিনন্দন


লুৎফর রহমান
২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০১:১৬ পূর্বাহ্ণ

Best wishes with full ratings. Sir/Mam. Please give your like, comments and ratings to watch my all contents PowerPoint, blog, image, video and publication of this fortnight. Link: PowerPoint: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1127146 Blog: https://www.teachers.gov.bd/blog-details/623422 Video: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1128454 Video 2: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1123933 Publication: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1132898 Batayon ID: https://www.teachers.gov.bd/profile/Lutfor%20Rahman