শিক্ষায় অগ্রযাত্রা

বাংলাদেশ অনলাইন প্রাইমারি স্কুলের শুরুটা যেভাবে

মো: সাইদুর রহমান টুটুল ০৯ জুলাই,২০২১ ৩৭ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ০.০০ রেটিং ( )

বাংলাদেশ অনলাইন প্রাইমারি স্কুলের শুরুটা যেভাবে

করোনা কালীন সময়ের পূর্বে ১৬/০১/২০২০ খ্রি. বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার আইসিটি দক্ষ শিক্ষককে নিয়ে একটি ফেইসবুক গ্রুপ ( ICT4E জেলা প্রাথমিক অ্যাম্বাসেডর শিক্ষক পরিবার)  ও ম্যাসেন্জার গ্রুপ খোলা হয়। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাল্টিমিডিয়া সচল করন, বিভিন্ন কনটেন্ট আদান প্রদান, ল্যাপটপ / প্রজেক্টর সম্পর্কিত বিভিন্ন ট্রাবলশ্যুটিং ও বিভিন্ন জেলার শিক্ষায় আইসিটি বিষয়ক বিভিন্ন কর্মকান্ড পোস্টের মাধ্যমে তুলে ধরে  করা হত  ফেইসবুক গ্রুপে অন্যদিকে মেসেঞ্জার  গ্রুপে আইসিটি বিষয়ক বিভিন্ন সমসাময়িক বিষয় নিয়ে নিয়মিত আলোচনা হতো।

পরবর্তীতে করোনা কালীন শুরুতে যখন একযোগে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ তখন আমরা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করি যে শিক্ষার্থীদের পাঠদান যাতে ব্যাহত না হয় সেজন্য কোন উপায় বের করা যায় কি না। ঠিক একই সময়ে সরকার সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনে ক্লাস সম্প্রচার করার উদ্যোগ নেয় এবং সেটা বাস্তবায়নের জন্য  আমাদের মধ্যে অনেককেই মনোনিত করেন। এই বিষয়টিকে কেন্দ্র করে তখনকার সময়ের  মহাপরিচালক মহোদয় সহ অনেকের সাথে আমাদের দফায় দফায় জুম মিটিং হয়। শুরু করি সংসদ টেলিভিশন এ পাঠদান কার্যক্রম চালু করার জন্য পাঠ রেকর্ডিং যা পরবর্তিতে রেজুলেশন সমস্যার জন্য সম্প্রচার সম্ভব হয়ে উঠে নি।

তারপর সকলে মিলে চিন্তা করলাম অন্যকোন ভাবে কিছু করা যায় কীনা। সকলের সিদ্ধান্ত মোতাবেক পাঠ সম্প্রচার করার জন্য (লাইভ/ রেকর্ডিং) ফেসবুক গ্রুপ ক্রিয়েট করা হয় গত ১২/০৪/২০২০খ্রি. যার নাম দেওয়া হয় “বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক@ICT”।  গ্রুপ পরিচালনার জন্য ফাউন্ডার এডমিন হিসেবে ৬ জন সম্মানিত শিক্ষক জনাব মো: আব্দুল গণি মন্ডল জয়পুরহাট জনাব মোহাম্মদ জাকির হোসাইন কিশোরগঞ্জ জনাব মো: সাফিউল ইসলাম সুমন নওগাঁ জনাব মো: নজরুল ইসলাম রাজশাহী জনাব রোকসানা ইয়াসমিন সুনামগঞ্জ জনাব মো: সাইদুর রহমান টুটুল ঝিনাইদহ, দ্বায়িত্ব নেন। তালিকা ওয়েব সাইডে পরিচিতি অপসনে আছে।  ১৬/০৪/২০২০খ্রি. শুরু করা হয় লাইভ/রেকর্ডিং ক্লাস এবং শিক্ষার্থীদের তাতে যুক্ত করার জন্য চলে আমাদের নানামুখী কার্যক্রম যদিও শ্রেণি কার্যক্রমে অনেক পরিবর্তন এসেছে এবং সেই পরিবর্তিত রূপ নিয়েই আমাদের কার্যক্রম অদ্যাবধি পর্যন্ত চলমান রয়েছে।

ডিপিই ও এটুআই এর যৌথ উদ্যোগে পরিচালিত “ঘরে বসে শিখি” ফেসবুক পেজের মাধ্যমে লাইভ ক্লাস শুরুর আগে আমাদের সাথে জুম মিটিং হয় এবং “ঘরে বসে শিখি” ফেসবুক পেজের পাশাপাশি  আমাদের অনলাইন স্কুল “বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক@ ICT “এর পাঠদান কার্যক্রম চলমান রাখার মৌখিক অনুমতি দেন।

তখনকার সময়ে  সারাবাংলাদেশে মাত্র দুটি পেজে/গ্রুপে প্রাথমিকের পাঠদান কার্যক্রম  চলমান ছিলো। গ্রুপের সিকিউরিটি, ক্লাস ভিডিওগুলো আলাদা আলাদা প্লে লিষ্টে সাজানো এবং অন্যান্য আরো কিছু সুবিধার কথা চিন্তা করে গ্রুপের পরিবর্তে পেজে ক্লাস শুরু করি যা ২২/০৯/২০১৯ খ্রি. তৈরীকৃত “আইসিটি” নামের পেজটিকে রিনেইম করে নাম দেওয়া হয় ‘‘বাংলাদেশ অনলােইন প্রাইমারি স্কুল‘‘ যার ধারাবাহিক শ্রেণি কার্যক্রম অদ্যাবধি পর্যন্ত চলমান।

পাঠদান কার্যক্রম সঠিকভাবে পরিচালনা, নিয়মিত রূটিন পরিচালনা এবং শ্রেণি কার্যক্রমে শিক্ষকদের উৎসাহিত করতে আইসিটিতে অধিকতর দক্ষ সেইসাথে নিয়মিত পাঠদান কারী কিছু সংখ্যক  শিক্ষকদের এডমিন, বিভাগীয় কোর্ডিনেটর, ডিস্ট্রিক কোর্ডিনেটর করা হয়।ওয়েব সাইডের পরিচিতি অপসনে দেওয়া আছে।  এছাড়াও আমাদের সকল কার্যক্রম সঠিকভাবে পরিচালনার জন্য গঠন করা  উপদেষ্টা পরিষদ’ করা হয়।

বাংলাদেশ অনলাইন প্রাইমারি স্কুলে পাঠদান কার্যক্রমের পাশাপাশি  শিক্ষককের কারিগরি দক্ষতা, অনলাইন লাইভ ক্লাস, জুম এপস, শিক্ষক বাতায়ন, মুক্তপাঠ, প্যাডাগজি, গুগল মিটসহ আরো অনেক বিষয়ে ওরিয়েন্টশন আয়োজন করা হয় যেখানে বিভিন্ন সময়ে  প্রাথমিকের অনেক কর্মকর্তা মহোদয় আমাদের সাথে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বিভিন্ন পরামর্শ ও অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন।

গুগল মিটে পাঠদান করার নির্দেশনা আশার পর থেকে আমরা পূর্বের সকল কার্যক্রম গুগল মিটে নিয়ে আসি এবং বর্তমানে আমরা গুগল মিট ছাড়া অন্য কোন মাধ্যমে ক্লাস নিচ্ছি না।

ইতি মধ্যে ৯০- ১০০ (৩০.০৬.২০২১খ্রি.) টি ক্লাস গুগল মিটে করা হয়েছে যার রেকর্ড ভিডিও পেজে সংরক্ষণ করা হয়েছে যাতে পরবর্তীতেও শিক্ষার্থীরা এ থেকে প্রয়োজনে শিক্ষা নিতে পারে।

উল্লেখ্য গুগল মিটের মাধ্যমে পাঠদান কার্যক্রম পর্যবেক্ষণে সংশ্লিষ্ঠ উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের কর্মকর্তা মহোদয়ও বিভিন্ন সময় আমাদের সাথে যুক্ত হয়েছেন।

শিক্ষককের দক্ষতা অর্জন সহ অনুপ্রেরণা মুলক কিছু অনুষ্ঠান আমাদের নিয়মিত  করা হতো তবে সেগুলো আপাতত বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে শ্রেণি পাঠদানের পাশাপাশি শুধুমাত্র শিক্ষার্থীদের নিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন, মৃত্যু বার্ষিকী , কবিতা, গান, বিশেষ দিবস নিয়ে আলোচনা ও প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান করা হয়ে থাকে।

শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রতিযোগিতামূলক অনুষ্ঠানে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে কুরিয়ারে বিভিন্ন শিক্ষামূলক বই শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে পাঠানো হয়ে থাকে।

গত ২৯.০৬.২০২১ খ্রি. শুধুমাত্র শিক্ষার্থীদের (৩০ জন) নিয়ে, শিক্ষার্থীদের উপস্থাপনায় কবিতা আর গানের অনুষ্ঠান করা হয় গুগল মিটে। আমাদের উদ্দেশ্য ছিল কোভিড পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীরা ঘরে বসে অন্তত কিছুটা হলেও বিনোদন পাবে যা তাদের মানসিক শক্তির পাশাপাশি নেতৃত্বের গুণাবলি  বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।

প্রাথমিক শিক্ষার আলো সকলের কাছে সহজে পৌঁছে দেওয়ার জন্য সম্মিলিত প্রচেষ্ঠায় ওয়েব সাইড তৈরী করা হয়েছে ওয়েব সাইডের মাধ্যমে শ্রেণি ভিত্তিক কনটেন্ট, প্রশিক্ষণ ম্যানুয়াল, শিক্ষার নতুন তথ্য, সহ বিভিন্ন শিক্ষামূলক তথ্য প্রচার প্রসার কাজ চলমান রয়েছে। ভ্যবিষ্যতে সম্মিলিত প্রচেষ্ঠায় প্রাথমিক শিক্ষা নিয়ে একটি এপস তৈরী করার পরিকল্পনা রয়েছে। যে এপস শিক্ষক ও অভিভাবক শিক্ষার্থীদের গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে বলে আশাকরি।

মতামত দিন