খবর-দার

শিক্ষিকাকে শ্লীলতাহানি করে মাদ্রাসা সভাপতি শ্রীঘরে!

মো: ফজলুল হক ২৯ জুলাই,২০২১ ২ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ রেটিং ( )

যশোরের অভয়নগর উপজেলার একটি মহিলা মাদ্রাসার সভাপতি সবুর শেখের বিরুদ্ধে ওই মাদ্রাসার মহিলা বিভাগের শিক্ষিকাকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে। শিক্ষিকার অভিযোগ পেয়ে থানা পুলিশ মাদ্রাসার সভাপতিকে আটক করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে মাদ্রাসার আবাসিক একটি কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কলেজ শিক্ষক মো. নুরুজ্জামান।

ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে ভুক্তভোগী শিক্ষিকা বলেন, আমি সকালে মাদ্রাসার আবাসিকের কক্ষের নির্ধারিত ঘরে ছিলাম। এ সময় মাদ্রাসার সভাপতি সবুর শেখ আমার ঘরে প্রবেশ করে জানতে চান আমার স্বামী কোথায়? আমি বাসায় নেই বললে তিনি আমার গায়ে হাত দেন এবং হাত ধরে টানাটানি করতে থাকেন। একপর্যায়ে আমি চিৎকার দিলে এলাকাবাসী জড়ো হলে তিনি দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

তিনি বলেন, ঘটনাটি জানাজানি হলে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ ও এলাকার সচেতন মহল বুধবার বিকালে মাদ্রাসায় সালিশ বৈঠকে বসেন। পরে মাগরিবের নামাজ শেষে বিক্ষুব্ধ জনতা সবুর শেখের বাড়িতে গিয়ে তাকে ধাওয়া করলে তিনি মাদ্রাসার সাধারণ সম্পাদক নুরুজ্জামানের বাড়িতে আশ্রয় নেন।

এ ব্যাপারে অভয়নগর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিলন কুমার মণ্ডল জানান, এলাকাবাসী মাদ্রাসার সভাপতিকে আটক করে গণধোলাই দেয়ার চেষ্টা করছিল, খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে থানা হেফাজতে আনা হয়। বুধবার রাতে ভুক্তভোগী শিক্ষিকা অভিযোগ দায়ের করলে সবুর শেখকে আটক দেখিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে তাকে যশোর জেলহাজতে .



মতামত দিন