নেতৃত্বের গল্প

স্বপ্নের স্কুল গড়ি, নিজেকে দিয়ে শুরু করি

দিলরুবা খানম ১৬ মার্চ,২০২০ ১৩৬ বার দেখা হয়েছে ১৩ লাইক ২৬ কমেন্ট ৫.০০ রেটিং ( ১৬ )

স্বপ্নের স্কুল তৈরি করতে স্বপ্ন দেখতে হয়। স্বপ্নকে যত্নে লালন পালন করতে হয়। আমি দিলরুবা খাতুন, প্রধান শিক্ষক,ধাদাশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,পুঠিয়া,রাজশাহী। ২০১০সালে এই বিদ্যালয়ে যোগদান করি। সেই সময় বিদ্যালয়ের অবস্থা খুবই দুর্বল ছিল।  ক্যাচমেন্ট এলাকার প্রায় ১০ পার্সেন্ট শিশু ভর্তি হত না। অনেকেই ঠিকমত ক্লাস করত না। যারা ক্লাসে আসত তাদের মধ্যেও অধিকাংশ ঠিকঠাক সব কিছুতে অংশগ্রহন করত না। সবাই পরবর্তি ক্লাসে উঠতে পারত না। যারা উঠে যায় তাদের গ্রেডসও ঠিকমত হত না। প্রায় ৮% শিশু প্রাথমিক শিক্ষা অতিক্রম করত না।

সমস্যাগুলোর সমাধান করা ছিল আমাদের জন্য একটা বড় চ্যালেঞ্জ।

এই সমস্যা থেকে উত্তোরণের জন্য আমরা কয়েকটি উদ্ভাবনী কার্যক্রম গ্রহন করি।

১. মিডডে মিল

২. সততা স্টোর

৩. মাল্টিমিডিয়া শ্রেণিকক্ষ স্থাপন

৪. মহানুভবতার দেয়াল

৫. স্বাস্থ্য কর্ণার

৬. কলম ব্যাংক

৭. দেয়াল পত্রিকা

৮. বঙ্গবন্ধু কর্ণার

৯. শ্রেণিকক্ষ বুক কর্ণার

১০. কবি পরিচিতি কর্ণার

১১. ফুলের বাগান

১২. নিরাপদ পানির ব্যবস্থা

১৩. ইতিহাসের পাতা থেকে

১৪. সজ্জিত শ্রেণিকক্ষ

১৫. শুদ্ধাচার কৌশল

১৬. সমস্যা সমাধানভিত্তিক শিখন

১৭. বিতর্ক অনুষ্ঠান

১৮. আইসিটি ক্লাস

১৯. One day one word কার্যক্রম

২০. হাতে খড়ি উৎসব

২১. বনভোজন

২২. পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের আলাদা যত্ন নেয়া।

একটি বিদ্যালয়ের রূপকল্প প্রণয়নে একটি বাস্তবায়নযোগ্য স্বপ্নের দরকার। স্বপ্নকে বাস্তবায়নের জন্য ভিতরে প্রচন্ড আগ্রহ থাকার দরকার। তবেই সফল হওয়া সম্ভব।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
বিশ্ব নাথ দাস
২৭ মার্চ, ২০২০ ০২:৩২ অপরাহ্ণ

শ্রেণি উপযোগি ও মান সম্মত সেরা নেতৃত্বের গল্প আপলোড করে শিক্ষক বাতায়নকে সমৃদ্ধ করার জন্য ধন্যবাদ। পূর্ণ রেটিংসহ শুভ কামনা রইলো। আমার এ পাক্ষিকের কনটেন্ট দেখে রেটিং, লাইক ও কমেন্ট দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইলো।


আব্দুল্লাহ আত তারিক
২৬ মার্চ, ২০২০ ০৩:২৪ অপরাহ্ণ

ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন । আপনি ভালো থাকলে ভালো থাকবে দেশ । চমৎকার নির্মাণের জন্য লাইক, কমেন্ট ও রেটিংসহ শুভেচ্ছা ও ভালবাসা রইল । আমার বাতায়ন বাড়িতে আমন্ত্রণ রইল । আমার উপস্থাপন করা নবম-দশম শ্রেণির সাহিত্য কণিকা বইয়ের কবি সৈয়দ শামসুল হকের লেখা আমার পরিচয় কবিতাটি দেখার জন্য নিবেদন রইলো। লিংক - https://teachers.gov.bd/content/details/544114


বিপ্লব কুমার সরকার
২৫ মার্চ, ২০২০ ১১:২০ অপরাহ্ণ

স্যার পূর্ণ রেটিং লাইক সহ শুভ কামনা রইল। আমার এ সপ্তাহের ৮ম শ্রেণির বাংলাদেশে ও বিশ্ব পরিচয় কনটেন্টে আপনার পূর্ণ রেটিংসহ লাইক ও কমেন্টস প্রত্যাশা করছি। স্যার ছুটির এই দিনগুলিতে বাড়িতে পরিবারসহ নিরাপদ থাকুন। খুবই প্রয়োজন না হলে বাইরে বের হবেন না। স্যার আর অবশ্যই বাইরে থেকে এলে প্রথমেই সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার জন্য সবাইকে উদ্বুদ্ধ করুন।


মোঃ মেরাজুল ইসলাম
২৩ মার্চ, ২০২০ ১২:৪৬ অপরাহ্ণ

মুজিব বর্ষের শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা রইলো । চমৎকার কনটেন্ট নির্মাণের জন্য রেটিং, লাইক, কমেন্ট ও অভিনন্দন। আমার বাতায়ন বাড়ি আমন্ত্রণ রইলো । ভালো থাকুন সব সময় । শুভ কামনা রইলো আপনার জন্য।


মোঃ গোলাম ওয়ারেছ
১৯ মার্চ, ২০২০ ১০:২৩ অপরাহ্ণ

মুজিব বর্ষের শুভেচ্ছা রইল। লাইক ও পূর্ণরেটিং সাথে অসংখ্য শুভকামনা আপনার জন্য । আমার কন্টেন্ট দেখে সুচিন্তিত মতামত, লাইক ও রেটিং প্রদানের অনুরোধ রইল। ধন্যবাদ।


দিলরুবা খানম
২০ মার্চ, ২০২০ ০৮:৩০ অপরাহ্ণ

মন্তব্যের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ স্যার।


আসমা খাতুন
১৯ মার্চ, ২০২০ ০৯:৫২ অপরাহ্ণ

সুন্দর কার্যক্রম,সফলতা কামনা করছি।


দিলরুবা খানম
২০ মার্চ, ২০২০ ০৮:৩০ অপরাহ্ণ

মন্তব্যের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ।


ননীগোপাল রায়
১৯ মার্চ, ২০২০ ০১:১৬ অপরাহ্ণ

লাইক ও রেটিংসহ শুভ কামনা রইলো। আমার কন্টেন্টগুলো দেখে রেটিং, লাইক ও কমেন্ট দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।


দিলরুবা খানম
২০ মার্চ, ২০২০ ০৮:৩০ অপরাহ্ণ

মন্তব্যের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ স্যার।


মোছাঃ মরিয়ম খাতুন
১৯ মার্চ, ২০২০ ১১:৩৫ পূর্বাহ্ণ

পূর্ণ রেটিং সহ শুভ কামনা রইল। আমার কনটেন্ট দেখার অনুরোধ রইল।


দিলরুবা খানম
২০ মার্চ, ২০২০ ০৮:৩১ অপরাহ্ণ

মন্তব্যের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ম্যাম।


মোঃ শহিদুল ইসলাম
১৭ মার্চ, ২০২০ ০৯:৪৭ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা । আমার ছবিতে ক্লিক করে আমার কনটেন্টগুলো দেখে লাইক কমেন্ট এবং রেটিংসহ মুল্যবান মতামত প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।আমার আইডি shahidulgdm@gmail.com


দিলরুবা খানম
২০ মার্চ, ২০২০ ০৮:৩১ অপরাহ্ণ

মন্তব্যের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ স্যার।


মোহাম্মাদ জাকির হোসাইন
১৭ মার্চ, ২০২০ ০৮:৪৪ অপরাহ্ণ

আপনার সকল কাজই সুন্দর,নিখুঁত,স্পষ্ট, স্বচ্ছ, এবং অনুকরণীয়।আপনার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা রইল।


দিলরুবা খানম
২০ মার্চ, ২০২০ ০৮:৩৩ অপরাহ্ণ

মন্তব্যে অনুপ্রাণিত হলাম, অসংখ্য ধন্যবাদ স্যার।


জান্নাতুল ফেরদৌস
১৭ মার্চ, ২০২০ ০৫:৫১ অপরাহ্ণ

সুন্দর কার্যক্রম আপু, আপনার সফলতা কামনা করছি।


দিলরুবা খানম
২০ মার্চ, ২০২০ ০৮:৩৩ অপরাহ্ণ

মন্তব্যের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ আপু।


শাহরিণা বিণ সুইটি
১৭ মার্চ, ২০২০ ১০:৩৭ পূর্বাহ্ণ

চমৎকার হয়েছে ম্যাম। পূর্ণ রেটিংসহ শুভকামনা ও অভিনন্দন। আমার কনটেন্টগুলো দেখে মতামত ও রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।


দিলরুবা খানম
১৭ মার্চ, ২০২০ ১২:৩৮ অপরাহ্ণ

আমি অবশ্যই আপনার কন্টেন্ট দেখবো। মন্তব্যের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ম্যাডাম।


মোঃ নজরুল ইসলাম
১৭ মার্চ, ২০২০ ০৯:৫৪ পূর্বাহ্ণ

যেমন আপনি, তেমন আপনার কাজ। এগুলোর জন্ই আপনি। আপনার এই কাজগুলো শুধু ধাধাশ কেই পরিবর্তন করে নি সারা বাংলাদেশের সব স্কুল্ কে develop করবে। I wish you all the best of the best, My dear apu.


দিলরুবা খানম
১৭ মার্চ, ২০২০ ১২:৩৮ অপরাহ্ণ

There are no words that can express my thanks for you.


মোঃ মেশবাহুল হক
১৬ মার্চ, ২০২০ ০৮:৩৬ অপরাহ্ণ

অসম্ভব সুন্দর হয়েছে ম্যাম। কী নেই আপনার গল্পে।এখান থেকে আমাদের অনেক অনেক কিছু শিখার আছে। শুভকামনা রইল।


দিলরুবা খানম
১৬ মার্চ, ২০২০ ১০:৪১ অপরাহ্ণ

অসীম কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। একদিন বেড়াতে আসুন স্কুলে। মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।


মোঃ জিয়াউর রহমান
১৬ মার্চ, ২০২০ ০৮:২৮ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো। আমার কনটেন্টগুলো দেখে রেটিং, লাইক ও কমেন্ট দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।


দিলরুবা খানম
১৬ মার্চ, ২০২০ ১০:৪৩ অপরাহ্ণ

আমি অবশ্যই আপনার কন্টেন্ট দেখবো। মন্তব্যের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ স্যার।