খবর-দার

আগস্টেই শ্রীলঙ্কায় লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ?

মোঃ ওবায়দুর রহমান ( সুমন ) ০২ জুলাই,২০২০ ৮ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ রেটিং ( )

আগস্টেই শ্রীলঙ্কায় লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ?


শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সবুজ সংকেত পেয়েছে। কিন্তু দেশের আন্তর্জাতিক সীমান্তই যদি বন্ধ থাকে বিদেশি ক্রিকেটাররা খেলতে আসবে কীভাবে? বিমানবন্দর খোলা না-খোলার সিদ্ধান্তের ওপরই তাই  নির্ভর করছে এলপিএলের ভাগ্য।

‘আমরা আশা করছি মহামান্য প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তার সঙ্গে আলোচনায় একটা সিদ্ধান্ত আমরা পৌছাঁতে পারবো’- ক্রিকেট ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফো শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অ্যাশলি ডি সিলভাকে উদ্ধৃত করেছে এভাবে।

অ্যাশলি ডি সিলভার কথাতেই পরিষ্কার যে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট এই টি-টোয়েন্টি লিগে বিদেশি ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণ চায়, ‘এই অঞ্চলের অন্য দেশগুলোর তুলনায় করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে শ্রীলঙ্কা খুব ভালো করেছে। আর এ জন্যই আমরা খুব করে চাই এই টুর্নামেন্টে বিদেশি খেলোয়াড়েরা অংশগ্রহণ করুক।’ শ্রীলঙ্কায় মাত্র ২০০০ জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত শনাক্ত হয় যাদের মধ্যে ১৭০০ জনই সুস্থ হয়ে গেছেন।

ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক এলপিএলে পাঁচটি দল অংশ নেবে বলে আশা করা হচ্ছে। সেই ২০১৮ সাল থেকেই অবশ্য এলপিএল আয়োজনের তোড়জোড় চলছে যা এখনও পর্যন্ত আলোর মুখ দেখতে পায়নি। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট এখনও ফ্রাঞ্চাইজি মালিকানা নির্ধারণ প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে। নিলামের মাধ্যমে ক্রিকেটারদের দলভুক্তির কাজটাও করতে বাকি। প্রতিটি দল সর্বোচ্চ ছয়জন বিদেশি ক্রিকেটার নিতে পারবে, যাদের মধ্যে একাদশে সুযোগ পাবে সর্বোচ্চ চারজন। এলপিএল কত লম্বা হবে সেটি এখনও ঠিক হয়নি। এটি নির্ভর করছে ভারতের আগস্টে প্রস্তাবিত শ্রীলঙ্কার সফরে ওপর। ‘এই মুহূর্তে আমরা ভাবছি ২৩ ম্যাচের লিগ হবে। কিন্তু ভারত আগস্টের সফরে রাজি হলে সম্ভবত লিগটা হয়ে যাবে ১৩ ম্যাচের’-বলেছেন ডি সিলভা।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
সন্তোষ কুমার বর্মা
০৩ জুলাই, ২০২০ ০১:১৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণরেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা। আমার কন্টেন্ট দেখে লাইক, রেটিং ও মতামত দেয়ার বিনীত অনুরোধ রইল।


মোঃ ওবায়দুর রহমান ( সুমন )
০২ জুলাই, ২০২০ ০৬:২৬ অপরাহ্ণ

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সবুজ সংকেত পেয়েছে। কিন্তু দেশের আন্তর্জাতিক সীমান্তই যদি বন্ধ থাকে বিদেশি ক্রিকেটাররা খেলতে আসবে কীভাবে? বিমানবন্দর খোলা না-খোলার সিদ্ধান্তের ওপরই তাই নির্ভর করছে এলপিএলের ভাগ্য। ‘আমরা আশা করছি মহামান্য প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তার সঙ্গে আলোচনায় একটা সিদ্ধান্ত আমরা পৌছাঁতে পারবো’- ক্রিকেট ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফো শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অ্যাশলি ডি সিলভাকে উদ্ধৃত করেছে এভাবে।