চিত্র

পৃথিবীতে কতগুলো ধর্ম আছে, কোন ধর্মের ধর্মাবলম্বী কত?

মোঃ তোফায়েল হোসেন ০৮ জুলাই,২০২০ ২৭ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ০.০০ রেটিং ( )

ধর্ম ডেস্ক: পৃথিবীর প্রতিটি ধর্মই কোনও না কোনও সময়ে মানবকল্যাণের স্বার্থে আবির্ভূত হয়েছে। সুন্দর জীবনের দিক নির্দেশনা, সাম্য ও মৈত্রীর বাণী নিয়ে যুগে যুগে বিভিন্ন ধর্মের আগমণ ঘটেছে। মধ্যপ্রাচ্য ও ভারতবর্ষকে বলা হয় ধর্মের আদিভূমি। শত সহস্র বছর ধরে এই ধর্মের নামেই মানুষ যেমন রক্তগঙ্গা বইয়ে দিয়েছে, আবার ধর্মের পথে চালিত হয়েই বিশ্বজুড়ে কোটি কোটি মানুষ সুসংহত ও মানবতাবাদী হয়ে উঠেছে। নিজের জীবনকে অপরের কল্যাণার্থে করেছে নিবেদন।

সাধারণত প্রধান ধর্ম হিসেবে কিছু ধর্মকে অন্যান্য ধর্ম থেকে আলাদা করার সর্বজনীন কোনও উপায় নেই। কারণ, প্রত্যেকের কাছে তার নিজের ধর্ম বিশ্বাসীই ‘প্রধান’। তারপরও ধর্মাবলম্বীদের সংখ্যা এবং ধর্ম নিয়ে পণ্ডিতজনের দেয়া সংজ্ঞার ভিত্তিতে এ ধরনের পার্থক্য করা যায়।

প্রধান ধর্ম নির্ধারণের সবচেয়ে প্রচলিত উপায় হল ধর্মানুসারীদের সংখ্যার ভিত্তিতে তা নির্ধারণ। তবে এই সংখ্যা-উপাত্তও সবসময় যথেষ্ট যাচাই বা নির্ভরযোগ্য নয়। সাধারণত কোনো দেশের আদমশুমারি থেকে এই উপাত্ত সংগ্রহ করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র, বা ফ্রান্সের মত যেসব দেশে আদমশুমারিতে ব্যক্তির ধর্মীয় বিশ্বাস সংক্রান্ত তথ্য থাকে না, সেখানে জরিপের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করা হয়। এই উপাত্তের নির্ভরযোগ্যতার পেছনে অন্তরায়সমূহ হল – সকল আদমশুমারি বা জরিপে একই ধরনের প্রশ্ন করে ব্যক্তির বিশ্বাস সংক্রান্ত তথ্য না নেয়া, ধর্মের পরিধি বা সংজ্ঞা নিয়ে সর্বত্র একই মত না থাকা, জরিপকারী সংস্থার পক্ষপাত ও দৃষ্টিভঙ্গি। তারপরেও এই উপাত্তের সমাহার মোটা দাগে পৃথিবীর বৃহত্তম ধর্মাবলম্বী গোষ্ঠীগুলোকে সনাক্ত করে।

অনুসারীর সংখ্যার ভিত্তিতে বিভিন্ন বিশ্বাসের তালিকা নিম্নে দেয়া হল। এখানে এমন বিশ্বাসী গোষ্ঠীও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে, যাদের বিশ্বাস সার্বিকভাবে কোনো ধর্ম গঠন করে না, আবার তারা অন্য কোনো সংঘবদ্ধ ধর্মীয় গোষ্ঠীরও অন্তর্গত নন।

নিচে বিশ্বের প্রধান ধর্মসমূহ ও ধর্মাবলম্বীর সংখ্যা তুলে ধরা হলো:

* খ্রিষ্ট ধর্ম – ২৩০কোটি (গোড়াপত্তন ২৭ খ্রিস্টাব্দ)
রোমান ক্যাথলিক চার্চ – ১৩০ কোটি
প্রোটেস্ট্যান্ট মতবাদ (অ্যাঙ্গলিকান মতবাদ ও অন্যান্য ইভান্‌জালীয় বিশ্বাস সহ) – ৬৭ কোটি ৫০ লক্ষ (গোড়াপত্তন ১৫২০ খ্রিস্টাব্দ)
অর্থোডক্স চার্চ, আসিরীয় চার্চ, মর্মন ও অন্যান্য খ্রিস্টীয় বিশ্বাস – ৩ কোটি ৩৭ লক্ষ

* ইসলাম ধর্ম – ১৮০ কোটি (গোড়াপত্তন ৬২২ খ্রিস্টাব্দ)
সুন্নি ইসলাম – ১৫০ কোটি
শিয়া ইসলাম – ২০ কোটি
সুফিবাদ ও অন্যান্য ইসলামি বিশ্বাস – ১০ কোটি

* নাস্তিকতাবাদ, অজ্ঞেয়বাদ, ইহবাদ, জুচে, ধর্মহীন – ১১০ কোটি
* হিন্দু ধর্ম – ৯০ কোটি (গোড়াপত্তন আনুমানিক খ্রিস্টপূর্ব ১৫ শতক)
* বৈষ্ণব – ৫৮ কোটি
* শৈব – ২২ কোটি
* শাক্ত/স্মার্ত/আর্য সমাজ ও অন্যান্য হিন্দু বিশ্বাস – ১৫ কোটি
* চীনা লোকধর্ম – ৩৯ কোটি ৪০ লক্ষ
* বৌদ্ধ ধর্ম – ৩৭ কোটি ৬০ লক্ষ (গোড়াপত্তন আনুমানিক খ্রিস্টপূর্ব ৬ শতক)
* মহাযান – ১৮ কোটি ৫০ লক্ষ
* থেরবাদ – ১২ কোটি ৪০ লক্ষ
* বজ্রযান – অজানা
* উপজাতীয়দের বিশ্বাসসমূহ – ৩০ কোটি
বিভিন্ন বিশ্বাস এর মধ্যে পড়ে, যেমন – উপজাতীয় বিশ্বাস, শামানবাদ এবং পেগান ধর্ম।
* আফ্রিকীয় সনাতন বিশ্বাসসমূহ – ১০ কোটি
* শিখ ধর্ম – ২ কোটি ৩০ লক্ষ (গোড়াপত্তন ১৫ শতক)
* আত্মাবাদ – ১ কোটি ৫০ লক্ষ (গোড়াপত্তন মধ্য ১৯ শতক)
কোনো একক সংঘবদ্ধ ধর্মীয় গোষ্ঠী নয়।
* ইহুদি ধর্ম – ১ কোটি ৪০ লক্ষ (গোড়াপত্তন আনুমানিক খ্রিস্টপূর্ব ১৩ শতক)
* বাহাই ধর্ম – ৭০ লক্ষ (গোড়াপত্তন ১৯ শতক)
* জৈন ধর্ম – ৪২ লক্ষ (গোড়াপত্তন ৬ শতক)
* শিন্টো – ৪০ লক্ষ (গোড়াপত্তন আনুমানিক খ্রিস্টপূর্ব ৩ শতক)
যারা শিন্টোকে ধর্ম হিসেবে মেনে নিয়ে পালন করেন হিসেবে উল্লেখ করেছেন, শুধু তারাই এখানে অন্তর্ভুক্ত। এছাড়া ইতিহাস, জাতি ও ঐতিহ্যগতভাবে যারা নিজেদের শিন্টো মনে করেন, তাদেরকেও এখানে অন্তর্ভুক্ত করলে এ সংখ্যা দাঁড়াবে প্রায় ১০ কোটি বা ততোধিক।
কাও দাই – ৪০ লক্ষ (গোড়াপত্তন ১৯২৬)
* জরথুস্ত্র ধর্ম – ২৬ লক্ষ (গোড়াপত্তন আনুমানিক খ্রিস্টপূর্ব ৬ শতক)
* ফালুন গং – ২১ লক্ষ (গোড়াপত্তন ১৯৯২)
বিভিন্ন জরিপকারী সংস্থা একে কোনো আলাদা বিশ্বাস বা ধর্ম মনে না করায় এর অনুসারীদের প্রকৃত সংখ্যা অযাচাইযোগ্য রয়ে গেছে।
* টেনরিকিও – ২০ লক্ষ (গোড়াপত্তন ১৮৩৮)
* নব্য-পেগান ধর্ম – ১০ লক্ষ (গোড়াপত্তন ২০ শতক)
* একাত্মবাদী সর্বজনীনতাবাদ – ৮ লক্ষ (গোড়াপত্তন ১৯৬১)
* রাসটাফারি আন্দোলন – ৬ লক্ষ (গোড়াপত্তন ১৯৩০ এর গোড়ার দিকে)
* সাইন্টোলজি – ৫ লক্ষ (গোড়াপত্তন ১৯৫২)

(তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট, ওয়েবসাইট)

মতামত দিন