ম্যাগাজিন

কামরাঙ্গার উপকারিতা ও ঔষধি গুনাগুন

মোঃ মিজানুর রহমান ১৫ জুলাই,২০২০ ৩২ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৪.৬৭ রেটিং ( )

কামরাঙ্গার উপকারিতা ও ঔষধি গুনাগুন

কামরাঙ্গা একটি চিরহরিৎ ছোট থেকে মাঝারি আকৃতির গাছ। ৬-৮ মিটার লম্বা হয়। তবে ঘন ডালপালা চারদিকে ছড়িয়ে থাকে। কিন্তু অন্য কোনো গাছের সাথে থাকলে আরো বেশি লম্বা হয়। পাতা যৌগিক, -৮ সে.মি. লম্বা। বাকল মসৃণ ও কালো বর্ণের হয়। ফল ১০-১৫ সে. মি. লম্বা ৬-৬ ভাঁজযুক্ত। কাঁচা অবস্থায় সবুজ ও পাকলে রং হলুদ বর্ণ ধারণ করে। আমড়ার মতোই কামরাঙ্গা দুই প্রকারের, একটি টক স্বাদযূক্ত এবং অন্যটি মিষ্টি। কামরাঙ্গা খাওয়া ছাড়াও এর জ্যাম, জেলি ও শরবত সুস্বাদু। এটি ভিটামিন এ ও সি- এর ভালো উৎস।

 

কামরাঙ্গার ঔষধি গুণঃ 

শতবর্ষ প্রাচীন এ ফলটি গুরুত্বপূর্ণ একটি ঔষধি। এ গাছের ফল থেকে বাকল পর্যন্ত সবই হারবাল মেডিসিনের জগতে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

কামরাঙ্গা শীতল ও টক তাই ঘাম, কফ ও বাতনাশক হিসেবে কাজ করে।

পাকা ফল রক্ত অর্শের এক মহৌষধ।

শুস্ক ফল জ্বরে ব্যবহৃত হয়।

জন্ডিস ও স্কার্ভি নিবারণে কামরাঙ্গা অত্যান্ত ফলপ্রসূ ওষুধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

কামরাঙ্গা গাছের পাতা ও কচি ফলের রসে ট্যানিন রয়েছে। সে কারণে এ রস রক্ত জমাট বাঁধেতে সাহায্য করে। তাই পাতা বেটে ক্ষত বা কাটা স্থানে লাগিয়ে দিলে রক্ত পড়া বন্ধ হয়। হাড় ভাঙাতেও পাতা বাটা দিয়ে প্রলেপ দিলে উপকার হয়।

জন্ডিস ও ডায়রিয়াসহ গুরুতর অসুস্থার পর শারীরিক ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে কামরাঙ্গা সাহায্য করে।

ইন্দোচীনে এর পাতা চুলকানি এবং কৃমিনাশক ওষুধরূপে ব্যবহৃত হয়।

মরিশাস, ফ্রান্স ও গায়ানাতে কামরাঙ্গা ফলের রস আমাশয় রোগে ব্যবহৃত হয়।

এর ক্বাথ পিত্তশূলে এবং অতিসারে প্রয়োগ করা হয়।

১০ কামরাঙ্গার মূল বিষনাশক হিসেবে ব্যবহার করা হয়।##

 

মোঃ মিজানুর রহমান মিজান

ICT4E অ্যাম্বাসেডর দিনাজপুর

            

সিনিয়র শিক্ষক(কম্পিউটার)

মির্জাপুর উচ্চ বিদ্যালয়

বিরামপুর, দিনাজপুর।

মোবাঃ ০১৭৪০৯৭৯৩৯৭

সুত্রঃ অনলাইন ডেক্স

 

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
সঞ্জয় ভৌমিক
২৪ জুলাই, ২০২০ ০৭:১৯ পূর্বাহ্ণ

সুন্দর পরিবেশনা। আপনার জন্য রইল লাইক,রেটিংসহ শুভকামনা। আমার সাম্প্রতিকতম কনটেন্ট "মৌমাছির সামাজিক আচরণ" https://www.teachers.gov.bd/content/details/639975 দেখে লাইক,রেটিং এবং আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেয়ার অনুরোধ রইল।


মেফতাহুন নাহার
২০ জুলাই, ২০২০ ০৯:৫৪ পূর্বাহ্ণ

শুভেচ্ছা-অভিনন্দন ও শুভকামনা। আমার কনটেন্টগুলো দেখে রেটিং, লাইক ও কমেন্ট দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইল। আমার বাতায়ন লিংকঃ http://www.teachers.gov.bd/profile/kabitacpm


মোছাঃ জেসমিন আকতার
২০ জুলাই, ২০২০ ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ

শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। আমার কনটেন্ট দেখে রেটিং, লাইক ও কমেন্ট দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।


মোছাঃ জেসমিন আকতার
২০ জুলাই, ২০২০ ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ

শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। আমার কনটেন্ট দেখে রেটিং, লাইক ও কমেন্ট দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।


মোছাঃ লাকী আখতার পারভীন
১৫ জুলাই, ২০২০ ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ণ

রেটিংসহ শুভ কামনা। আমার কন্টেন্ট দেখে লাইক কমেন্টস ও রেটিং প্রদানের বিনীত অনুরোধ করছি।


মোঃ রওশন জামিল
১৫ জুলাই, ২০২০ ১২:৪৩ পূর্বাহ্ণ

ধন্যবাদ।