News Details

ঢাকা আহসানিয়া মিশন এর সার্বিক তত্বাবধান ও এটুআই এর কারিগরি সহায়তায় শিক্ষক বাতায়নে আসছে ১ম ও ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পড়ার দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে উন্নীত ডিকোডেবল ও লেভেল বই।

১৩ অক্টোবর,২০১৯

১ম ও ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পড়ার দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে উন্নীত ডিকোডেবল ও লেভেল বই

ভূমিকা

প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের সঠিক নিয়মে পড়তে পারা, মানসম্মত শিক্ষার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষাক্রমের উচ্চ স্তরের সকল বিষয়ের শিখন ও বোধগম্যতার ভিত্তি তৈরি হয়  নিচের শ্রেণি থেকে পড়তে শেখার দক্ষতার উপর। ২০১৩ সালে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর এর একটি জরিপে দেখা গেছে তৃতীয় শ্রেণির ২৫% শিশু পড়ার দক্ষতার ক্ষেত্রে নির্ধারিত যোগ্যতার চেয়ে পিছিয়ে আছে। শিক্ষার্থীদের পড়ার দক্ষতা বৃদ্ধি পাওয়ার ক্ষেত্রে শ্রেণিকক্ষে পাঠ্য পুস্তকের পাশাপাশি সহায়ক পঠন উপকরণ পড়ার অভ্যাস বিশেষ অবদান রাখে। বাংলাদেশে বিনামূল্যে শ্রেণি অনুযায়ী টেক্সট বই দেয়া হলেও সহায়ক উপকরণের যথেষ্ট অভাব রয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের ICT পলিসি এবং জাতীয় শিক্ষানীতিতে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ICT অবকাঠামো উন্নয়ন এবং শিক্ষায় ICT ব্যবহারের উপর বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।

ইতোমধ্যে প্রায় ১২,০০০ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। কিন্তু ICT ভিক্তিক শিক্ষাকে কার্যকর ও ইন্টারেক্টিভ করার ক্ষেত্রে মান সম্পন্ন কনটেন্ট এর যথেষ্ট অভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে।

এই প্রেক্ষাপটে ইউএসএইড-ইউআরসি-এর সহায়তায় ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন প্রাথমিক শিক্ষার বিভিন্ন পর্যায়ে কর্মরত শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের সহায়তায় সুনির্দিষ্ট পদ্ধতিগত ধাপ অনুসরণ করে ১ম ও ২য় শ্রেণির জন্য ৫০টি ডিকোডেবল এবং ১৫০টি লেভেল ই-বুক উন্নয়ন করেছে। “Bloom” সফটওয়ার ব্যবহার করে এই ২০০টি ই-বুক উন্নয়ন করা হয়েছে। বইগুলি মাঠ পরীক্ষার মাধ্যমে চুড়ান্ত করা হয়েছে। বইগুলির বৈশিষ্ট্য ও বই তৈরির নীতিমালা নিচে উল্লেখ করা হলো:

 

ডিকোডেবল বই (১ম শ্রেণি) পরিচিতি

প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থীদেরকে স্বরবর্ণ শেখানোর শেষে পাঠ্য বইয়ের ১৬নং পাঠ থেকে যখন ব্যঞ্জণবর্ণ শেখানো শুরু হয় তখন থেকে সহায়ক উপকরণ হিসাবে ডিকোডেবল বইগুলি তৈরি করা হয়েছে।  ডিকোডেবল বই তৈরির লক্ষ্যে ১ম শ্রেণির পাঠ্য বইয়ের ১৬নং পাঠ থেকে ৩১নং পাঠ পর্যন্ত অংশকে ৭টি পর্যায়ে ভাগ করা হয়েছে। প্রতিটি পর্যায়ে শেখানো নির্দিষ্ট বর্ণগুলি দ্বারা তৈরিকৃত শব্দ দিয়ে ৫০টি ডিকোডেবল বই তৈরি করা  হয়েছে।  নিচে পাঠ অনুযায়ী ৭টি পর্যায়ের ভাগ, প্রতিটি পর্যায়ে পড়ানোর সময় ও বইয়ের সংখ্যা দেখানো হলো :

 

পর্যায়

বইগুলি পড়ানোর সময়

নির্ধারিত ডিকোডেবল  বইয়ের সংখ্যা

১ম পর্যায়

১৬ নং পাঠ

২টি

২য় পর্যায়

১৭ নং পাঠ

৪টি

৩য় পর্যায়

১৮ নং পাঠ

৫টি

৪র্থ পর্যায়

১৯ নং পাঠ

৫টি

৫ম পর্যায়

২০-২২নং পাঠ

৯টি

৬ষ্ঠ পর্যায়

২৩-২৪নং পাঠ

১০টি

৭ম পর্যায়

২৫-৩১নং পাঠ

১৫টি

 

ডিকোডেবল বই তৈরির নীতিমালা

বিবরণ

পর্যায়

প্রতি পৃষ্ঠায় ব্যবহৃত সর্বোচ্চ বাক্য সংখ্যা

প্রতি বাক্যে ব্যবহৃত সর্বোচ্চ শব্দ সংখ্যা

প্রতি পৃষ্ঠায় ব্যবহৃত সর্বোচ্চ শব্দ সংখ্যা

প্রতিটি বই-এ ব্যবহৃত সর্বোচ্চ পৃষ্ঠা সংখ্যা

প্রতি বইতে ব্যবহৃত সর্বোচ্চ শব্দ সংখ্যা

১৮

১৮

২৪

৩২

৩২

৪০

৪৮

প্রতি বইতে ব্যবহৃত নতুন শব্দ সংখ্যা

৩-৫

৩-৫

৩-৫

৩-৫

৩-৫

৩-৬

৩-৮

প্রতিটি বইতে প্রতিটি নতুন শব্দের পূণরাবৃত্তির সংখ্যা

৫-১০

৫-১০

৫-১০

৫-১০

৫-১০

৫-১০

৫-১০

বইয়ের বিষয়বস্তু

শিশুদের পরিচিত  বিষয়

 

লেভেল বই (প্রথম শ্রেণি)

প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থীদেরকে পাঠ্য বইয়ের ৩২নং পাঠে (আ-কার) শেখানোর শুরু থেকে প্রথম শ্রেণির  লেভেল বই পড়ানো শুরু করা যেতে পারে।  প্রথম শ্রেণির  লেভেল বই তৈরির লক্ষ্যে প্রথম শ্রেণির পাঠ্য বইয়ের ৩২নং পাঠ থেকে ৫৬নং পাঠ পর্যন্ত অংশকে  ৫টি  পর্যায়ে ভাগ করা হয়েছে। প্রতিটি পর্যায়ে শেখানো নতুন ও পূর্ব পরিচিত শব্দ এবং কার চিহ্ন ও যুক্তবর্ণ দ্বারা তৈরিকৃত শব্দ দিয়ে প্রথম শ্রেণির  লেভেল বই  তৈরি করা হয়েছে। প্রথম শ্রেণির  লেভেল বইয়ের মোট সংখ্যা ৪০টি।  নিচে পাঠ অনুযায়ী ৫টি  পর্যায়ের ভাগ, প্রতিটি পর্যায়ের পড়ানোর সময় ও বইয়ের সংখ্যা দেখানো হলো :

 

পর্যায়

বইগুলি পড়ানোর সময়

নির্ধারিত পর্যায়ে বইয়ের সংখ্যা

পর্যায় -১

১৬ নং পাঠ

৪টি

পর্যায় -২

১৭ নং পাঠ

৬টি

পর্যায় -৩

১৮ নং পাঠ

৬টি

পর্যায় -৪

১৯ নং পাঠ

১৪টি

পর্যায় -৫

২০-২২নং পাঠ

১০টি

 

প্রথম শ্রেণির লেভেল বই তৈরির নীতিমালা

বিবরণ

পর্যায়

প্রতি পৃষ্ঠায় ব্যবহৃত সর্বোচ্চ বাক্য সংখ্যা

প্রতি বাক্যে ব্যবহৃত সর্বোচ্চ শব্দ সংখ্যা

প্রতি পৃষ্ঠায় ব্যবহৃত সর্বোচ্চ শব্দ সংখ্যা

১০

১৫

১৮

২৮

প্রতিটি বই-এ ব্যবহৃত সর্বোচ্চ পৃষ্ঠা সংখ্যা

১০

প্রতি বইতে ব্যবহৃত সর্বোচ্চ শব্দ সংখ্যা

৬৪

৮০

১২০

১৪৪

২৮০

প্রতি বইতে ব্যবহৃত সর্বোচ্চ নতুন শব্দ সংখ্যা

২০

২০

২৪

৩০

৪০

প্রতিটি বইতে প্রতিটি নতুন শব্দের পূণরাবৃত্তির সংখ্যা

২-৫

২-৫

২-৫

২-৫

২-৫

বইয়ের বিষয়বস্তু

পাঠের বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত

 

লেভেল বই (দ্বিতীয় শ্রেণি)

দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীদেরকে পাঠ্য বই পড়ানোর শুরু থেকে দ্বিতীয় শ্রেণির  লেভেল বই পড়ানো শুরু করা যেতে পারে।  দ্বিতীয় শ্রেণির  লেভেল বই তৈরির লক্ষ্যে দ্বিতীয় শ্রেণির পাঠ্য বইকে মোট ৫টি  পর্যায়ে ভাগ করা হয়েছে। প্রতিটি পর্যায়ে শেখানো নতুন এবং পূর্ব পরিচিত শব্দ ও যুক্তবর্ণ দ্বারা তৈরিকৃত শব্দ দিয়ে দ্বিতীয় শ্রেণির  লেভেল বই  তৈরি করা হয়েছে। দ্বিতীয় শ্রেণির  লেভেল বইয়ের মোট সংখ্যা ১১০টি।  নিচে পাঠ অনুযায়ী ৫টি  পর্যায়ের ভাগ, প্রতিটি পর্যায়ের পড়ানোর সময় ও বইয়ের সংখ্যা দেখানো হলো:

পর্যায়

বইগুলি পড়ানোর সময়

নির্ধারিত লেভেল বই সংখ্যা

পর্যায় -১

১-১১নং পৃষ্ঠা

৬টি

পর্যায় -২

১২-২৩নং পৃষ্ঠা

২০টি

পর্যায় -৩

২৪-৩৫নং পৃষ্ঠা

২৪টি

পর্যায় -৪

৩৬-৫১নং পৃষ্ঠা

২৮টি

পর্যায় -৫

৫২-৭৭নং পৃষ্ঠা

৩২টি

 

দ্বিতীয় শ্রেণির লেভেল বই তৈরির নীতিমালা

বিবরণ

পর্যায়

প্রতি পৃষ্ঠায় ব্যবহৃত সর্বোচ্চ বাক্য সংখ্যা

প্রতি বাক্যে ব্যবহৃত সর্বোচ্চ শব্দ সংখ্যা

প্রতি পৃষ্ঠায় ব্যবহৃত সর্বোচ্চ শব্দ সংখ্যা

৩৫

৪২

৪৮

৫৬

৬৩

প্রতিটি বই-এ ব্যবহৃত সর্বোচ্চ পৃষ্ঠা সংখ্যা

১০

১০

১২

১২

১২

প্রতি বইতে ব্যবহৃত সর্বোচ্চ শব্দ সংখ্যা

৩৫০

৪২০

৫৭৬

৬৭২

৭৫৬

প্রতি বইতে ব্যবহৃত সর্বোচ্চ নতুন শব্দ সংখ্যা

৪০

৫০

৬০

৭২

৮৪

প্রতিটি বইতে প্রতিটি নতুন শব্দের পূণরাবৃত্তির সংখ্যা

২-৫

২-৫

২-৫

২-৫

২-৫

বইয়ের বিষয়বস্তু

পাঠের বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত

বাংলাদেশের যে সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে  মাল্টিমিডিয়া ক্লাশরুম প্রতিষ্ঠিত হয়েছে সে সকল বিদ্যালয়ে এই বইগুলি সহজেই ব্যবহার করা যাবে। শিক্ষকদের সহায়তায় প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীরা এই বইগুলি পড়ে একদিকে যেমন নতুন নতুন বই পড়তে পারার আনন্দ পাবে অন্যদিকে তেমনি তাদের পড়তে পারার প্রতিবন্ধকতাগুলি (Reading difficulty) দূর হবে।

বই পেতে ক্লিক করুন
https://bit.ly/2XzJxt9 এই লিংকে।