"অগ্নিযুগের অগ্নিপুত্র সত্যেন্দ্রনাথ বসু"

দেবপ্রসাদ মণ্ডল ২২ নভেম্বর,২০১৯ ১০৯ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ ()

১৯০৮ সালের ২২ নভেম্বর প্রেসিডেন্সি জেলে ফাঁসির মঞ্চে জীবনের জয়গান গেয়েছিলেন রাজনারায়ণ বসুর ভ্রাতুষ্পুত্র এবং বিপ্লবী অরবিন্দু ঘোষ ও বারিন ঘোষের মামা বিপ্লবী সত্যেন্দ্রনাথ বসু। 


ব্রিটিশ সরকারের রোষের মাত্রা এতো বেশি ছিলো যে, ফাঁসির পরে তাঁর মৃতদেহ আত্মীয়দের কাছে তুলে দেওয়া হয়নি। এর পিছনে ছিলো একটাই কারণ সশস্ত্র পথে তিনি অবিভক্ত ভারতবর্ষে স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখেছিলেন। 


১৯০২ সালে হেমচন্দ্র দাস কানুনগোর নেতৃত্বে একটি গুপ্ত বিপ্লবী সংগঠন গড়ে তুলেছিলেন। ১৯০৫ সালে বঙ্গভঙ্গ আন্দোলনের সময় মেদিনীপুরে তিনি 'ছাত্রভাণ্ডার' গড়ে তোলেন। এখানে তাঁত, ব্যয়ামচর্চার ইত্যাদি কর্মের অন্তরাতে বিপ্লবীদের ঘাঁটি তৈরি হয়। বীর ক্ষুদিরাম তাঁর সাহায্যে বিপ্লবী দলভুক্ত হয়ে এখানে আশ্রয় পান। ১৯০৬ সালে মেদিনীপুরে অনুষ্ঠিত কৃষি-শিল্প-প্রদর্শনীর তিনি সহ-সম্পাদক ছিলেন। এখানে ক্ষুদিরাম তাঁর নির্দেশে 'সোনার বাংলা' শীর্ষক বিপ্লবাত্মক ইসতাহার বিলি করে গ্রেফতার হন। তিনি ক্ষুদিরামকে মিথ্যা অছিলায় মুক্ত করার জন্য সরকারি চাকরি থেকে বরখাস্ত হন। 


বাল গঙ্গাধর তিলকের অনুগামী সত্যেন্দ্রনাথ বসু ১৯০৮ সালে বাংলার প্রথম বিপ্লবাত্মক কর্মকাণ্ড কিংসফোর্ড হত্যা প্রচেষ্টার আগেই বন্দুক রাখার অপরাধে মেদিনীপুর জেলে বন্ধী ছিলেন। পরে বিখ্যাত আলীপুর বোমা মামলার আসামি করে তাঁকে নিয়ে আসা হয়। বিচার চলাকালে দলের বিশ্বাসঘাতক নরেন গোঁসাই রাজসাক্ষী হলে হেমচন্দ্র ও তিনি জেলে বসেই এই বিশাসঘাতকে নিশ্চিহ্ন করার সিদ্ধান্ত নেন। দু-টি রিভলবার জেলের মধ্যে সংগ্রহ করেন। কানাইলাল দত্ত একথা জানতে পেরে এই কাজে অংশ নিতে চান। সত্যেন্দ্রনাথ মিথ্যে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে সেখান থেকে তিনি রাজসাক্ষী হতে চান এইমর্মে পরমর্শের জন্য নরেনকে চিঠি লিখে ডেকে পাঠান। 

৩০-০৮-১৯০৮ সালে কানাইলাল অসুস্থতার ভান করে হাসপাতালে ভর্তি হন। পরদিন সকালবেলা নরেন একটি অ্যাংলো-ইন্ডিয়ান সার্জেন্টের প্রহরায় তাঁদের কাছে আসা মাত্রই সত্যেন্দ্রনাথ গুলি করেন। আহত নরেন পালায়নের সময় কানাইলাল আবার গুলি করেন এবং নরেন গোঁসাই নিহত হন। 


এই অপরাধে তাঁদের ফাঁসি হয়। আশ্চর্য শিবনাথ শাস্ত্রী তাঁর মৃত্যুর আগে জেল প্রাঙ্গণে গিয়ে প্রার্থনা করেন। 

শুরু হয় স্বশস্ত্র আন্দোলনের রক্তক্ষয়ী অধ্যায়।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মোঃ হাফিজুল ইসলাম
২৪ নভেম্বর, ২০১৯ ০৬:৫৯ পূর্বাহ্ণ

আপনাকে ধন্যবাদ , আমার কন্টেন্ট দেখে লাইক, রেটিংসহ মতামতের জন্য বিনীত অনুরোধ রইল । আমার শিক্ষক বাতায়ন আইডি- hafizb2013/hafiznt19@gmail.com আমার প্রোফাইল লিংকঃ- https://www.teachers.gov.bd/user-profile কন্টেন্ট লিংক- https://www.teachers.gov.bd/content/details/505914 1. কান্ড কি তা বলতে পারবে । 2. কান্ডের বিভিন্ন ধরনের রূপান্তর বলতে পারবে । 3. ভূ-নিম্নস্থ রূপান্তরিত কান্ড সমূহের বর্ণনা করতে পারবে ।