সৃষ্টির ভালোবাসায় স্রষ্টার খুশি................................

মো; ফজলুল হক ২০ নভেম্বর,২০২০ ১০১ বার দেখা হয়েছে ৮৪ লাইক ১৮ কমেন্ট ৫.০০ (৩৯ )

মহানবী (সা.) শুধু মানুষকে ভালোবাসতেন না। ভালোবাসতেন পশুপাখি। ভালোবাসতেন তরুলতা ও প্রকৃতি। কেবল মানবজাতি নয়, জীবজন্তুর অধিকার রক্ষায়ও তিনি ছিলেন সোচ্চার। এক দিনের ঘটনা।

রাসূলুল্লাহ (সা.) এক আনসারির খেজুর বাগানে প্রবেশ করলে হঠাৎ একটি উট দেখতে পান। উটটি নবী (সা.)কে দেখে কাঁদতে লাগল। নবীজি অনেক ব্যথিত হলেন। উটটির কাছে গিয়ে তার মাথায় হাত বুলিয়ে আদর করলেন। এতে উটটির কান্না বন্ধ হয়ে গেল।

তিনি জিজ্ঞেস করলেন, এ উটের মালিক কে? এক আনসারি যুবক এসে বলল, হে আল্লাহর রাসূল! আমি। নবীজি (সা.) বললেন, ‘আল্লাহ যে তোমাকে এই নিরীহ প্রাণীটির মালিক বানালেন, এর ব্যাপারে তুমি কি আল্লাহকে ভয় করো না?

উটটি আমার কাছে অভিযোগ করেছে, তুমি একে ক্ষুধার্ত রাখ এবং কষ্ট দাও (সুনানে আবু দাউদ : ২৫৪৯)। পশুপাখির প্রতি কোমল ব্যবহার ইবাদতের পর্যায়ভুক্ত। পশুপাখিকে কষ্ট দেয়া গুনাহের কাজ। রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন : ‘আল্লাহতায়ালা প্রত্যেক বিষয়ে তোমাদের কাছে সদাচার কামনা করেন।

অতএব, তোমরা যখন হত্যা করবে, দয়াশীল হয়ে হত্যা করবে; আর যখন জবাই করবে তখন দয়ার সঙ্গে জবাই করবে। তোমাদের সবাই যেন ছুরি ধারালো করে নেয় এবং তার জবাইকৃত জন্তুকে কষ্টে না ফেলে’ (সহিহ মুসলিম : ১৯৫৫)। পশুপাখির সঙ্গে যথাসম্ভব দয়াশীল আচরণ করতে হবে।

পশুপাখির অঙ্গহানি করা নিষিদ্ধ। ‘রাসূলুল্লাহ (সা.) ওই ব্যক্তিকে অভিশাপ দিয়েছেন, যে প্রাণীদের অঙ্গচ্ছেদ করে’ (বুখারি, হাদিস নং : ৫৫১৫)। বিড়ালকে কষ্ট দেয়ার কারণে এক মহিলাকে জাহান্নামে যেতে হয়েছিল।

রাসূল (সা.) বলেন : ‘এক নারীকে একটি বিড়ালের কারণে আজাব দেয়া হয়েছিল। সে বিড়ালটিকে বেঁধে রেখেছিল। সে অবস্থায় বিড়ালটি মারা যায়। মহিলাটি ওই কারণে জাহান্নামে গেল।

কেননা সে বিড়ালটিকে খানাপিনা কিছুই দেয়নি এবং ছেড়েও দেয়নি যাতে সে জমিনের পোকামাকড় খেয়ে বেঁচে থাকত’ (সহিহ বুখারি : ৩৪৮২)। আসুন সব ধরনের প্রাণীর প্রতি সদয় ও স্নেহশীল হই। তাদের জন্য ভালোবাসা ও মমতা লালন করি এবং প্রকৃতির সৌন্দর্য রক্ষায় মনোযোগী হই।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মোঃ ওয়াহিদুর রহমান
২৭ নভেম্বর, ২০২০ ০৫:৫৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভেচ্ছা রইল


সুমাইয়া আক্তার
২৭ নভেম্বর, ২০২০ ০৬:২৩ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ অভিনন্দন ও শুভকামনা। আমার কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত, রেটিং ও লাইক প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।


রিপন সূত্রধর
২৭ নভেম্বর, ২০২০ ০১:২২ পূর্বাহ্ণ

খুব সুন্দর।শুভ কামনা


ঝর্ণা সুলতানা
২৭ নভেম্বর, ২০২০ ০১:০৮ পূর্বাহ্ণ

আমিন।শুভ কামনা নিরন্তর স্যার।


রেহানা আক্তার ঝর্ণা
২৫ নভেম্বর, ২০২০ ০৪:৩৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ শুভকামনা। আমার এ পাক্ষিকের কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও রেটিং প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।


মোঃ তৌফিকুল ইসলাম
২২ নভেম্বর, ২০২০ ১০:৫৫ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও রেটিংসহ শুভকামনা। আমার এ পাক্ষিকে আপলোডকৃত কন্টেন্ট এ আপনার লাইক ও রেটিং প্রার্থনা করছি। আমার কন্টেন্ট এর লিংকঃ https://www.teachers.gov.bd/content/details/777801


অচিন্ত্য কুমার মন্ডল
২১ নভেম্বর, ২০২০ ০৫:০৫ অপরাহ্ণ

শুভকামনা রইলো এবং সেই সাথে পূর্ণ রেটিং । আপনার তৈরি কন্টেন্ট আমার দৃষ্টিতে সেরার তালিকা ভুক্ত। সে জন্য আপনাকে একটু সহযোগিতা করতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। সেই সাথে কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছি। আমার এ পাক্ষিকের কন্টেন্ট ও ব্লগ দেখার ও রেটিং সহ মতামত প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। ধন্যবাদ https://www.teachers.gov.bd/content/details/777226 https://www.teachers.gov.bd/blog-details/583425


মোঃ মেহেদুল ইসলাম
২১ নভেম্বর, ২০২০ ০৩:০৬ অপরাহ্ণ

বাতায়নের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ ।চমৎকার নির্মানের জন্য লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ শুভকামনা ।আমার কন্টেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও রেটিং প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি


আব্দুল্লাহ আত তারিক
২১ নভেম্বর, ২০২০ ০১:০০ অপরাহ্ণ

আপনার দিনটি শুভ হোক । আপনার অনিন্দ্যসুন্দর নির্মাণের জন্য অভিনন্দন ও শুভ কামনা রইল । আমার বাতায়ন নীড়ে আমন্ত্রণ রইল । এই পাক্ষিককে আমার নির্মিত অষ্টম শ্রেণির সাহিত্য কণিকা বইয়ের কনটেন্ট "মংড়ুর পথে" ভ্রমণকাহিনী দেখে আপনার মতামতের প্রত্যাশায় রইলাম। ঘরে থাকুন, সুস্থ্য থাকুন।


TONNY FARIHA
২০ নভেম্বর, ২০২০ ১০:৩৩ অপরাহ্ণ

শ্রেণি উপযোগী চমৎকার কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা।


SARA FARIN
২০ নভেম্বর, ২০২০ ১০:২৪ অপরাহ্ণ

শ্রেণি উপযোগী চমৎকার কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা।


PRANATI DHAR
২০ নভেম্বর, ২০২০ ১০:১৮ অপরাহ্ণ

শ্রেণি উপযোগী চমৎকার কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা।


NIRANJAN SAHA
২০ নভেম্বর, ২০২০ ১০:১৬ অপরাহ্ণ

শ্রেণি উপযোগী চমৎকার কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা।


মিহির কুমার দাস
২০ নভেম্বর, ২০২০ ১০:০৩ অপরাহ্ণ

শ্রেণি উপযোগী চমৎকার কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা।


মোঃ মাহবুবুল হক ফারুকী
২০ নভেম্বর, ২০২০ ০৯:৫৯ অপরাহ্ণ

শ্রেণি উপযোগী চমৎকার কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা।


মাহবুবুল আলম (তোহা)
২০ নভেম্বর, ২০২০ ০৯:৫৭ অপরাহ্ণ

Best wishes sir, please visit https://www.teachers.gov.bd/content/details/777229https://www.teachers.gov.bd/content/details/777153


KHURSHID UDDIN
২০ নভেম্বর, ২০২০ ০৯:৫০ অপরাহ্ণ

শ্রেণি উপযোগী চমৎকার কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা।


Md.Shohidul Islam
২০ নভেম্বর, ২০২০ ০৯:০৭ অপরাহ্ণ

শ্রেণি উপযোগী চমৎকার কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা। আমার কন্টেন্ট দেখার বিনীত অনুরোধ রইল।