যে প্রশ্ন শুধু আমার নয়, আমাদের সবার

আফসিনা ২৭ ডিসেম্বর,২০২০ ৮০ বার দেখা হয়েছে লাইক ১৪ কমেন্ট ৪.৩০ (১০ )

ভেবেছিলাম, অভিজ্ঞতাটা বুঝি আমার একার। রাইড শেয়ারিংয়ের অ্যাপ ব্যবহার করে মোটরবাইকে উঠলে মাঝেমধ্যে চালক ব্রেক কষেন, তাঁর সঙ্গে ধাক্কা লাগে। কোনো কোনো সময় দেখা গেছে, মসৃণ রাস্তায়ও ব্রেক চাপতে হচ্ছে চালককে। আর হঠাৎ এই ঝাঁকুনি বুঝে ওঠার আগে অপ্রীতিকর সেই ধাক্কা লেগে যাচ্ছে। এই ধাক্কা নিজের ভুল ধরে নিয়েই একসময় কাঁধে ঝোলানোর ব্যাকপ্যাককে বানিয়ে ফেললাম চেস্টপ্যাক ব্যাগটা বুকের কাছে চেপে নিয়ে বসলে দেখা যায় চালককে বেশি বেশি ব্রেক চাপতে হয় না। এখন প্রশ্ন উঠতে পারে, অপ্রীতিকর অভিজ্ঞতা নিয়ে কেন রাইড শেয়ারিংয়ের বাইকে উঠতে হবে। সেই প্রশ্ন অনেক দিন ধরেই শুনছি।

তাহলে বাসের অভিজ্ঞতাটা বলি। টাঙ্গাইলের রূপার কথা হয়তো অনেকের স্মৃতি থেকে মুছে গেছে। তিনি চাকরির সাক্ষাৎকার দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। বাসকেই ভেবেছিলেন বাড়ি ফেরার নিরাপদ বাহন। কিন্তু তাঁর মৃত্যু আমাদের মতো গণপরিবহন ব্যবহারকারী মেয়েদের মনে আজীবনের মতো আতঙ্কের দাগ বসিয়ে গেছে। তাই এখন অল্প দূরত্বেও বাসে উঠলে ঠিক দরজার পাশের সিটে বসতে হয়। ফাঁকা রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা বাস দেখলে মনে হয় সেই প্রাগৈতিহাসিক ডেথ চেম্বার, যেন অন্ধকার থেকে কালো হাতের ঘৃণ্য থাবা ডাকছে। এমনকি রিকশায় বসলেও রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা, গাড়িতে বসে থাকা, বাস দিয়ে উঁকি দিয়ে থাকা কিছু অস্বস্তিকর দৃষ্টি মনে বিষাদ আর ভয় ছড়িয়ে দেয়। এমনকি কেউ কেউ একদুটি নোংরা শব্দ দিয়ে আমাদের এতটাই ভেতরে ছুঁয়ে যায়, যা যেকোনো পোশাক, যেকোনো নিরাপত্তাবলয়কে ভেদ করে আঘাত করে ব্যক্তিত্বে, আঘাত করে বোধে, বিবেকে। পর্দার আড়ালে থাকা মাবোন, কিংবা লাল টুকটুকে ফ্রকে থাকা ছোট মেয়েটিও নোংরা শব্দবাণ থেকে মুক্তি পায় না।

এই শহর আমারস্বস্তির নিশ্বাস ছেড়ে এই কথাগুলো বলতে চাই। কিন্তু পারি না, থেমে যাই। ভাবতাম, শহরের রাস্তায়ও গুমোট এই অনুভূতি সব মেয়ের হয় না। কিন্তু চোখ আটকে যায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া একটি বিজ্ঞাপনচিত্রে। আমাদের নীরবতাই ওদের সাহস নামের বিজ্ঞাপনচিত্রটি বানিয়েছেন নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী স্কয়ার টয়লেট্রিজের জুঁই বিউটিফুল হেয়ার’–এর জন্য। ভিডিওটির বর্ণনায় থাকা শুরুর কয়েকটি লাইন একেবারে যেন বিঁধে যায় শরীরের প্রতিটি রোমকূপে। মেয়েরা রাস্তায় যেতে পারবে না, স্কুলে যেতে পারবে না, বাসে উঠতে পারবে না, এমনকি ঘরেও থাকতে পারবে না!

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মোঃ তৌফিকুল ইসলাম
০২ জানুয়ারি, ২০২১ ০৮:২৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও রেটিংসহ শুভকামনা। আমার কন্টেন্ট দেখার আমন্ত্রন রইল।


শামছুন নাহার
৩০ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:১৮ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো।


আফসিনা
০২ জানুয়ারি, ২০২১ ০৭:৩৬ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ


আফসিনা
২৯ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:৩২ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ


লুৎফর রহমান
২৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ১১:৪৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো। আমার এ পাক্ষিকে আপলোডকৃত ৪৯ তম কনটেন্টটি দেখে লাইক,গঠন মূলক মতামত ও রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। কনটেন্ট লিংকঃ https://www.teachers.gov.bd/content/details/821516 Blog link: https://www.teachers.gov.bd/blog-details/587120


আফসিনা
২৯ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:৩২ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ


মোঃ মেহেদুল ইসলাম
২৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৯:০৮ অপরাহ্ণ

স্যার/ম্যাডাম, শিক্ষক বাতায়নে চলতি পাক্ষিকে আমার আপলোডকৃত ব্লগ দেখে লাইক,কমেন্ট ও রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। ২৭/১২/২০২০ https://teachers.gov.bd/blog-details/587235


আফসিনা
২৯ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:৩২ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ


অচিন্ত্য কুমার মন্ডল
২৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৫:৩৬ অপরাহ্ণ

শুভকামনা রইলো এবং সেই সাথে পূর্ণ রেটিং । আপনার তৈরি কন্টেন্ট আমার দৃষ্টিতে সেরার তালিকা ভুক্ত। সে জন্য আপনাকে একটু সহযোগিতা করতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। সেই সাথে কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছি। আমার এ পাক্ষিকের কন্টেন্ট ও ব্লগ দেখার ও রেটিং সহ মতামত প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। ধন্যবাদ কন্টেন্টঃ https://www.teachers.gov.bd/content/details/814593 ব্লগঃ https://www.teachers.gov.bd/blog-details/587168


আফসিনা
২৯ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:৩২ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ


মোসাঃশারমিন আক্তার
২৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৫:১৩ অপরাহ্ণ

শুভকামনা রইল


আফসিনা
২৯ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:৩২ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ


আব্দুল্লাহ আত তারিক
২৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৯:২৫ পূর্বাহ্ণ

সুপ্রভাত, আপনার দিনটি শুভ হোক । অনেক শ্রমলব্ধ আপনার এই নির্মাণ। পূর্ণ রেটিংসহ আপনার সফলতা গল্প শোনার অপেক্ষায় থাকলাম । ডিসেম্বর - ২০ এর পাক্ষিক - ২ আমার নির্মিত কনটেন্ট নবম-দশম শ্রেণির বাংলা সাহিত্য বইয়ের কবি শামসুর রাহমান রচিত "তোমাকে পাওয়ার জন্য, হে স্বাধীনতা" দেখার জন্য আমন্ত্রণ রইল ।


আফসিনা
২৯ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:৩৩ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ