করোনায় বেড়েছে বাল্যবিবাহের ঝুঁকি

লাভলী আক্তার ১৩ মার্চ,২০২১ ৮০ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ ()




বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারির কারনে  সৃষ্ট সামাজিক সমস্যার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে বাল্যবিবাহ।বাংলাদেশে বাল্যবিবাহের অবস্থা এমনিতেই ভয়াবহ।তার উপর চলমান করোনা পরিস্থিতির কারনে মেয়েরা আরো বেশি বাল্যবিবাহের শিকার হচ্ছে।এর অন্যতম প্রধান কারন হলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকা।দীর্ঘ দিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারনে গ্রামীন পরিবারের অভিভাবকদের মধ্যে অনিশ্চয়তা তৈরি হচ্ছে।এই সময়ে বিভিন্ন দেশে কর্মরত অভিবাসী শ্রমিকসহ বিভিন্ন পেশার লোকেরা বাড়িতে অবস্থান করছেন।আর এই অবরুদ্ধ অবস্থায় মেয়েদের বিয়ে দিয়ে ফেলার চেষ্টা করছেন অভিভাবকরা।

করোনার কারনে অনেক অভিভাবকের উপার্জন বন্ধ হয়ে গেছে।এটাও বাল্যবিয়ের একটা কারন।
আবার করোনা কালীন সময়ে বিয়েতে লোক সমাগম কম হবে বলেও অনেক দরিদ্র পরিবার খরচ বাঁচাতে এই সময় মেয়ের বিয়ে দিচ্ছেন।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার ফলে ছেলে মেয়েরা বিভিন্ন অসামাজিক কর্মকান্ডে নিজেদের জড়িয়ে ফেলছে।তাই মান সম্মানের ভয়েও অনেক বাবা মা তাদের মেয়ে তারাতারি বিয়ে দিচ্ছে।

বিভিন্ন গবেষনা বলছে, লকডাউনের মধ্যে পরিচিত মানুষ এমন কি পরিবারের সদস্য দ্বারাও মেয়েরা যৌন হেনস্থা শিকার হচ্ছে।এ দিকটাও বাল্যবিয়ে দেওয়ার একটা কারন হিসেবে কাজ করছে।

ব্রাকের এক গবেষনায় বলা হয়েছে ৭১ শতাংশ বাল্যবিয়ে সংগঠিত হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারনে।


প্রতিবছর বিশ্বের প্রায় ১ কোটি  ২০ লাখ মেয়ের ১৮ বছরের আগেই বিয়ে হয়ে যায়।করোনার কারনে আগামী এক দশকে অতিরিক্ত আরো ১ কোটি ৩০ লাখ মেয়ে বাল্য বিয়ের শিকার হবে বলে আশংকা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ।স্কুল বন্ধ থাকার কারনে বাল্যবিয়ের ঝুঁকি অনেক টা বেড়ে গেছে।

বাল্যবিয়ের কারনে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে আছে অনেক কিশোরী বধু।অন্যদিকে করোনা কালীন বাল্যবিয়ের কারনে অনেক  অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়ে গর্ভবতী হবার আশংকায় রয়েছে।


করোনা মহামারীর এই সময়ে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলার পাশাপাশি বাল্যবিবাহের মতো একটি সামাজিক ব্যধিকেও রোধ করতে হবে।এজন্য সরকারী কার্যক্রমের  পাশাপাশি বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, এনজিও, মহিলা সংস্থা সহ সকল  সংগঠনকে এগিয়ে আসতে হবে।সর্বোপরি সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে।অভিভাবকদের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করতে হবে।নারী শিক্ষার উপর জোর দিতে হবে।তাহলেই বাল্য বিবাহের মতো সামাজিক সমস্যা কমবে বলে আশা করা যায়।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মোঃ মুজিবুর রহমান
২৪ মে, ২০২১ ০৭:৫৩ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেয়ার জন্য অনুরোধ করছি।


মোঃ নূরল আলম
১৪ মার্চ, ২০২১ ০২:২৮ অপরাহ্ণ

মান সম্মত চমৎকার উপস্থাপন। লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভ কামনা রইল। আমার বাতায়ন পেইজে ৪৮তম জীব বিজ্ঞান বিষয়ে আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।


সেলিম মাহমুদ
১৪ মার্চ, ২০২১ ০১:২৯ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট ও ব্লগ দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।


মোহাম্মদ শাহাদৎ হোসেন
১৪ মার্চ, ২০২১ ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন এবং নিরাপদে থাকবেন। আবারও ধন্যবাদ।


মোঃ মেরাজুল ইসলাম
১৩ মার্চ, ২০২১ ১১:৩৫ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো। আমার এ পাক্ষিকে আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে লাইক,মতামত ও রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি


রমজান আলী
১৩ মার্চ, ২০২১ ১০:৩৫ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো। আমার এ পাক্ষিকে আপলোডকৃত ৪১ তম কনটেন্ট দেখে লাইক,গঠন মূলক মতামত ও রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।


শাহানারা আক্তার হ্যাপি
১৩ মার্চ, ২০২১ ০৮:৩৮ অপরাহ্ণ

আপা চমৎকার লিখেছেন। ধন্যবাদ এগিয়ে যান। আপনার জন্য শুভকামনা রইলো।


মোঃ সাইফুর রহমান
১৩ মার্চ, ২০২১ ০৮:০০ অপরাহ্ণ

অনেক সুন্দর উপস্থাপন। লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা রইল। বাতায়নের সন্মানিত শ্রদ্ধেয় প্যাডাগোজি, রেটার, এডমিন মহোদয়, সকল সেরা কন্টেন্ট নির্মাতা, সকল সেরা উদ্ভাবক, সকল সেরা অনলাইন পারফর্মার ও সকল জেলা অ্যাম্বাসেডর, সকল সক্রিয় শিক্ষকবৃন্দ আমার আপলোডকৃত ৫৩ তম কনটেন্ট "রাসায়নিক বন্ধন" শিরোনামে ও ব্লগ দেখে লাইক ও পূর্ণ রেটিং দেওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। ধন্যবাদ।


লুৎফর রহমান
১৩ মার্চ, ২০২১ ০৭:৪৮ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো। আমার এ পাক্ষিকে আপলোডকৃত ৫৪ তম কনটেন্ট ও ব্লগ দেখে লাইক,গঠন মূলক মতামত ও রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। কনটেন্ট লিংকঃ https://www.teachers.gov.bd/content/details/894975