ভালোমানের স্কুল এমপিওভুক্তি ও জাতীয়করণের সুপারিশ

মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম ২৬ জুলাই,২০২১ ৩৩ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ ()


  

মানসম্মত সেগুলোকে এমপিওভুক্তি ও জাতীয়করণের সুপারিশ করেছে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটি। কমিটি মনে করে, যাদের (স্কুল) পাঠদানের অনুমতি দেওয়া হয়েছে, তাদের কয়েক বছর অপেক্ষায় না রেখে এমপিওভুক্ত করা উচিত। যেসব স্কুল কোয়ালিফাইড তাদের সরকারীকরণ করা এবং দ্বৈত পদ্ধতি থেকে সরে আসতে হবে। এ ছাড়া বাস্তবমুখী শিক্ষাব্যবস্থা চালুর জন্য আগামী ১০ বছরে কোন কোন সেক্টরে উন্নয়ন করতে হবে তার একটি সমন্বিত পরিকল্পনা নিতে হবে। এ ক্ষেত্রে দেশের বেকারত্ব দূরীকরণে কারিগরি শিক্ষার ওপর জোর দেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

জাতীয় সংসদ সচিবালয়ে সম্প্রতি স্থায়ী কমিটির এই মিটিংয়ের কার্যপত্র থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। সভায় কমিটির সভাপতি জামালপুর-১ আসনের সাংসদ আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অন্য সদস্যরা এতে বক্তব্য দেন।

সভায় কমিটির সদস্য ও পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, বাজেটের যে অর্থ বেঁচে যায় তা দিয়ে যতদূর সম্ভব কিছু কোয়ালিফাইড স্কুল এমপিওভুক্ত করার ব্যবস্থা করতে হবে। তিনি বলেন, যাদের পাঠদানের অনুমতি দেওয়া হয়েছে, তাদের কয়েক বছর অপেক্ষায় না রেখে এমপিওভুক্ত করা উচিত। যেসব স্কুল কোয়ালিফাইড তাদের সরকারীকরণ করা এবং দ্বৈত পদ্ধতি থেকে সরে আসতে হবে। এ ছাড়া প্রকল্প বাস্তবায়নের গতি আনতে শিগগিরই শিক্ষা সচিবকে কমিটির সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে সব প্রকল্প পরিচালকদের (পিডি) নিয়ে জরুরি বৈঠক করার নির্দেশ দেন তিনি।

পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, শেখ হাসিনা কেবিনেট সভায়, জাতীয় অর্থনৈতিক কমিটির নির্বাহী কমিটি (একনেক) সভায় জোর দিয়ে বলেছেন আইএমইডিকে আরও শক্তিশালী করার জন্য। আইএমইডির লোকবলের অভাব থাকায় ঢাকায় বসে ১ হাজার ৮০০ প্রকল্প দেখা সম্ভব নয়। সেখানে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল প্রতিটি বিভাগে একটি করে অফিস খোলার জন্য। যদি উপযুক্ত মানের কর্মকর্তা সেখানে নিয়োগ দেওয়া যায় তাহলে ওই বিভাগের প্রকল্পগুলো তারা সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করতে পারবে। প্রধানমন্ত্রী সঙ্গে সঙ্গে অনুমোদন দিলেন। একটা রেজল্যুশন হলো, তার অর্ডার হলো। এটা নিয়ে যখন কাজ শুরু করা হলো, তখন অনেক বাধা এলো। অর্ডারটি এখনো আছে। সেটা নিয়ে এখনো চেষ্টা করা হচ্ছে কাজ করার জন্য।

কমিটির সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, শিক্ষা খাতে যে বরাদ্দ দেওয়া হয় তা ১৬১টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৫৫তম। দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে শিক্ষা খাতে বাংলাদেশের বরাদ্দ সবচেয়ে কম। শিক্ষা খাতের বরাদ্দ নিয়ে স্থায়ী কমিটি কোনো সহায়তা করতে পারে কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি। ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে এখন কীভাবে তৈরি করা হচ্ছে তার ওপর নির্ভর করবে আধুনিক উন্নত বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ। কিন্তু বেসিক দুর্বলতা হলো সক্ষমতার ঘাটতি।

এ ব্যাপারে বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) কোনো সুপারিশ আছে কি না, তা তিনি জানতে চান। দেশে যত বেশি শিক্ষিত, ততই বেকারত্বের হার বেশি। চাহিদা যেগুলো আছে, সেগুলোর একটি সিমুলেশন করতে হবে। আগামী ১০ বছর বাংলাদেশ কোথায় নিজেকে দেখতে চায় এবং সেটার জন্য কোন কোন সেক্টরে গ্র্যাজুয়েট দরকার, সেটার সঙ্গে এডুকেশন সিস্টেমটা সিমুলেট করে কাজ করতে হবে। বাংলাদেশ শিক্ষাব্যবস্থায় একটা মডেল সিটিজেন তৈরি করতে যাচ্ছে, অর্থনীতির যে রোডম্যাপ আছে, সেটার সঙ্গে সংগতি রেখে সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিন থেকে গ্র্যাজুয়েট তৈরি করতে হবে।

সভায় সাবের হোসেন আরও বলেন, আইএমইডিকে শক্তিশালী করা হবে এ কথাটি অনেক দিন ধরে শোনা যাচ্ছে। আজ পর্যন্ত শক্তিশালীকরণের কোনো নমুনা গ্রাউন্ডে দেখা যাচ্ছে না, সেটা দেখতে চাই। আইএমইডির কাছে যে রিপোর্টগুলো এসেছে, সেই অনুযায়ী কোনো পিডি বা কোনো ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এমন কোনো উদাহরণ নেই। তাদের মান অনুযায়ী যে কাজ করার কথা তা তারা করেনি, তার জন্য পিডি ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে? প্রশ্ন রাখেন তিনি।

ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, পরিশ্রম করে, মেধা খাটিয়ে যে রিপোর্টগুলো দাঁড় করানো হচ্ছে, সেগুলো থেকে যদি সর্বোচ্চ ইউটিলিটিটা না নেওয়া যায়, তাহলে শুধু রিপোর্ট দিয়ে লাভ হবে না। এ ছাড়া প্রকল্প বাস্তবায়নে যারা কমপিটেন্ট পিডি তাদের কোনো গ্রেডিং করা হয় না। একজনের পারফরম্যান্স কী হলো সে বিবেচনায় রেখে তাকে আগামীতে দায়িত্ব দেওয়া হবে কি না, এ বিষয়টি ইভ্যালুয়েশনের মধ্যে রাখা হয় উচিত। সেটা কতটুকু করা হচ্ছে এবং এ বিষয়ে পরিকল্পনা কী, তা তিনি জানতে চান।

সভায় সদ্য পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়া তৎকালীন পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য ড. শামসুল আলম বলেন, সমুদয় বাজেটের ৪০ ভাগ হলো উন্নয়ন ব্যয়। উন্নয়ন ব্যয় প্রকল্প বাস্তবায়নের বড় অভিযোগ তোলে সিভিল সোসাইটি বা থিংক ট্যাঙ্ক বা সাধারণ মানুষ। প্রকল্পের অনেক পরিদর্শন বেড়েছে, মূল সমস্যা বাস্তবায়ন দক্ষতা বাড়ানো। তিনি বলেন, দেশের বেকার সমস্যা প্রবল। ৩০ বছর বয়স পর্যন্ত ২৯ ভাগের পর্যাপ্ত শিক্ষা, প্রশিক্ষণ, চাকরি কোনোটাই নেই। তাদের কাজে লাগানো যাচ্ছে না। যাচাই-বাছাই করে জনবল নিয়োগ দিতে হবে। তা না হলে প্রকল্প বাস্তবায়নে সমস্যা থেকেই যাবে। আইএমইডি থেকে মন্ত্রণালয়ে রিপোর্ট দেওয়ার পর মন্ত্রণালয় সেটা নিয়ে কী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে, সে সম্পর্কে আইএমইডিকে অবহিত করে না, এ বিষয়টারও উন্নতি হওয়া দরকার।

কমিটির অপর সদস্য মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার সর্বোচ্চ মান নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ল্যাবরেটরিগুলোতে আধুনিক যন্ত্রপাতি সরবরাহ করার পাশাপাশি শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের গবেষণা সহায়ক পরিবেশ তৈরি ও প্রশিক্ষণ প্রদানে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। অনেক মন্ত্রণালয় আছে, বাজেটে যা বরাদ্দ দেওয়া হয় তা খরচ করতে পারে না। কোনো কোনো মন্ত্রণালয় আছে, যা প্রয়োজন তার চেয়ে কম বরাদ্দ পায়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ও যা বরাদ্দ পেয়েছে, তা খরচ করতে পারেনি।

তিনি বলেন, অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পতাকা উত্তোলন হচ্ছে না। শুধু মাদ্রাসা নয়, কোনো স্কুল, কলেজ যদি এর যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত না করে তাহলে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, কিছু শিক্ষক যুগের পর যুগ তাদের পছন্দের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সদস্যদের নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর ক্ষতি করছেন। স্কুল ও কলেজ এই দুটো জায়গায় ম্যানেজিং কমিটির এই পদ্ধতি পরিবর্তন করা প্রয়োজন। এমপিওভুক্তির বিষয়টা অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে দেখতে হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ অন্যানা প্রতিষ্ঠান শুধু পৌর এলাকায় না করে একটা সুষম বণ্টনের মাধ্যমে গ্রামাঞ্চলগুলোকেও উন্নত করতে হবে। অন্যথায় গ্রামাঞ্চল থেকে দারিদ্র্য দূর হবে না, কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে না।

 

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
ফাহমিদা বেগম
৩১ জুলাই, ২০২১ ০৯:১৬ অপরাহ্ণ

সুন্দর ও শ্রেণি উপযোগী কন্টেন্ট আপলোড করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। লাইক ও পূর্ন রেটিংসহ শুভকামনা রইল। সাথে আছি সাথে থাকবেন।


মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম
২৭ জুলাই, ২০২১ ০৮:১২ অপরাহ্ণ

মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম ২৩ জুলাই, ২০২১ ০৮:২১ অপরাহ্ণ সম্মানিত প্যাডাগজি রেটার মহোদয়গণ, এডমিন প্যানেল মহোদয়গণ, সেরা কনটেন্ট নির্মাতাগণ, ICTE4 জেলা আম্ব্যাসেডর মহোদয়গণ, বাতায়ন প্রেমী শিক্ষকমন্ডলী আমার কনটেন্ট দেখে আপনাদের সুচিন্তিত মতামত ও রেটিং বিনীতভাবে আশা করছি । আপনাদের সহযোগিতা ও উৎসাহ পেলে বাতায়ন কে আরও সমৃদ্ধ করতে পারবো। আমিও স্বপ্ন দেখি, একদিন বাতায়নের সেরা কন্টেন্ট নির্মাতা হবো। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, বাতায়নের সাথে থাকুন এবং নিরাপদে থাকুন।


পার্থ সারথী নাথ
২৭ জুলাই, ২০২১ ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ

চমৎকার উপস্থাপনা, লাইক ও পূর্ণরেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা ও অভিনন্দন। এই পাক্ষিকে আমার আপলোডকৃত পরিবেশের ভারসাম্য এবং আমাদের জীবন-শ্রেণি-৬ষ্ঠ-বিজ্ঞান-অধ্যায়-১৪ প্রেজেন্টেশনে লাইক, পূর্ণ রেটিংসহ গঠনমুলক মতামত প্রত্যাশা করছি। আপনার সুচিন্তিত মতামত আমার চলার পথকে আরো সুদৃঢ় করবে। মাস্ক পরি, করোনাকে প্রতিরোধ করি। ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন, নিজে বাচুঁন-দেশকে বাচাঁন। অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থা এগিয়ে যাক, শিক্ষক বাতায়ন সমৃদ্ধ হোক।


সন্তোষ কুমার বর্মা
২৬ জুলাই, ২০২১ ০৭:০৪ অপরাহ্ণ

সুন্দর শ্রেণি উপযোগী কন্টেন্ট আপলোড করার জন্য লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।


জাহিদুল ইসলাম
২৬ জুলাই, ২০২১ ০৬:৩৭ অপরাহ্ণ

আসসালামু আলাইকুম। ঈদ মোবারক। লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত ৩৪তম কনটেন্ট দেখার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। আমার এ পাক্ষিকের কনটেন্ট এ রেটিং করার অনুরোধ করছি। আমার কনটেন্ট লিংকঃ https://www.teachers.gov.bd/content/details/1053143


বিপুল সরকার
২৬ জুলাই, ২০২১ ০৬:১৮ অপরাহ্ণ

🕊️শ্রদ্ধেয় বাতায়ন প্রেমী , অনিন্দ্য সুন্দর আপনার উপস্থাপন । শুভকামনা ও অভিনন্দন সহ বাতায়নে প্রবেশ করলে আমার পাতায় স্বাগত। চলতি পাক্ষিকের কন্টেন্টে 👍 Like - Rating করার বিনীত 🙏 অনুরোধ করছি। 💐💐


মোহাম্মদ শাহাদৎ হোসেন
২৬ জুলাই, ২০২১ ০৬:১৬ অপরাহ্ণ

👉 লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন এবং নিরাপদে থাকবেন। আবারও ধন্যবাদ।


লুৎফর রহমান
২৬ জুলাই, ২০২১ ০৬:০৬ অপরাহ্ণ

Best wishes with full ratings. Sir/Mam. Please give your like comments and ratings to watch my contents below: pptx https://www.teachers.gov.bd/content/details/1052033 Blog: https://www.teachers.gov.bd/blog-details/613864 Video: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1054236 Video 2: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1063645 Publication: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1054697 Batayon ID: https://www.teachers.gov.bd/profile/Lutfor%20Rahman