Loading..

ম্যাগাজিন

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ০৮:৫৯ পূর্বাহ্ণ

স্কুলে সহপাঠীদের স্বাস্থ্য সেবা দেয় ২৩ লাখ "ক্ষুদে ডাক্তার"।

শিশুর মাধ্যমে শিশুদের স্বাস্থ্যসেবা দিতে সারাদেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়-মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসায় রয়েছে ২৩ লাখ ৫০ হাজার 'ক্ষুদে ডাক্তার'।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের (ডিজিএইচএস) সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণ (সিডিসি) এই স্বাস্থ্যসেবা কর্মসূচি পরিচালনা করছে। 

আগামী ২০-২৬ আগস্ট সারাদেশের এই ক্ষুদে ডাক্তারেরা নিজ স্কুলের সহপাঠীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করবে। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে, মাউশি অধিদপ্তর ও মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর ও অন্যান্য সহযোগী সংস্থার যৌথ উদ্যোগে এ কার্যক্রম চলবে।

স্বাস্থ্য পরীক্ষায় শিক্ষার্থদের ওজন, উচ্চতা ও দৃষ্টিশক্তি পরিমাপ করা হবে। মাদ্রাসাসহ দেশের সব প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার ফাইলেরিয়া নিমূল, কৃমি নিয়ন্ত্রণ ও ক্ষুদে ডাক্তার কার্যক্রমের আওতায় শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে।

সিডিসির প্রোগ্রাম ম্যানেজার (ফাইলেরিয়াসিস, এসটিএইচ এবং লিটল ডক্টর প্রোগ্রাম) ডা. এম এম আকতারুজ্জামান দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডতড (টিবিএস) জানিয়েছেন, বর্তমানে সারাদেশে ২৩ লাখ ৫০ হাজার ক্ষুদে ডাক্তার আছে। তাদের বয়স ৫ থেকে ১৬ বছরের মধ্যে। 

''বছরে দুইবার জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহে শিশুদের কৃমিনাশক ওষুধ খাওয়ানো এবং স্কুলের অন্য বাচ্চাদের উচ্চতা, ওজন, আই টেস্ট করাসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যশিক্ষা দেয় ক্ষুদে ডাক্তারেরা। বছর ব্যাপী ভ্যাকসিনেশনে সহায়তা করাসহ যেকোন ধরনের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত প্রোগ্রামে তারা কাজ করে।''

''সাপের কামড়কে ক্ষুদে ডাক্তার কর্মসূচীর আওতায় আনা হবে। সাপে কামড় দিলে কি করণীয়, কোথায় গেলে চিকিৎসা পাবে তা ক্ষুদে ডাক্তাররা মানুষকে জানাবে'' বলেন  ডা আকতারুজ্জামান। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, শিশুর মাধ্যমে শিশুদের স্বাস্থ্য-শিক্ষা দেওয়ার লক্ষ্যে ২০১১ সাল থেকে ক্ষুদে ডাক্তার কর্মসূচি শুরু করা হয়। সে সময় শুধু প্রাইমারি স্কুলে ক্ষুদে ডাক্তার কর্মসূচি চালু করা হয়।  পরবর্তীতে ২০১৮ সালে হাই স্কুলে ক্ষুদে ডাক্তার কর্মসূচি চালু করা হয়। তবে দুই বছর কোভিডের কারণে স্কুল বন্ধ থাকায় এ কর্মসূচীতে কিছুতে ব্যাঘাত ঘটেছে। এখন নতুন করে আবার সবকিছু চালু করা হচ্ছে।

বিদ্যালয়ের প্রতি শ্রেণি থেকে তিনজন ক্ষুদে ডাক্তার নির্বাচন করা হয়। প্রাইমারি স্কুলের ক্লাস থ্রি, ফোর ও ফাইভ এবং হাই স্কুলের সিক্স, সেভেন ও নাইনের শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে ক্ষুদে ডাক্তার  বাছাই করা হয়। একজন ক্লাস টিচার বা গাইড শিক্ষকের মাধ্যমে তাদের কার্যাবলী সম্পর্কে অবহিত করা হয়।

আরো দেখুন

কোন তথ্য খুঁজে পাওয়া যাইনি