ভিডিও কনটেন্ট

মোঃ আব্দুল হক, সহকারী শিক্ষক ( আইসিটি ), মাড়েয়া সিংরোড মৌলভী পাড়া দাখিল মাদ্রাসা

মোঃ আব্দুল হক ১৮ এপ্রিল,২০২০ ৯৭ বার দেখা হয়েছে লাইক ১২ কমেন্ট ৫.০০ রেটিং ( )

শারীরিক সক্ষমতায় ব্যায়ামের প্রভাব

শারীরিক সক্ষমতার জন্য ব্যায়াম অপরিহার্য। ব্যায়াম না করলে কখনও শারীরিক সক্ষমতা অর্জন সম্ভব নয়। সেজন্য সব বয়সের লোকদের নিয়ম মোতাবেক নির্দিষ্ট ব্যায়াম করা প্রয়োজন। ব্যায়ামের প্রভাবে শরীরের ভেতর বিভিন্ন রকম পরিবর্তন হয় যা শারীরিক সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। ব্যায়ামের প্রভাবে শরীরের ভিতর যে পরিবর্তন হয় তা এখানে তুলে ধরা হলো-

১.হৃৎপিন্ডের  (Heart)পেশি শক্তিশালী হয় : খেলাধুলা বা ব্যায়াম করলে শরীরের রক্ত চলাচল বেড়ে যায় ফলে হৃৎপিন্ডের কর্মক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়। কর্মক্ষমতা বৃদ্ধির ফলে হৃৎপিন্ডের পেশি শক্তিশালী, হৃৎপিন্ড বড় ও নীরোগ হয়। এরুপ হার্টকে “অ্যাথলেটিক হার্ট” বলে।

২. হৃৎপিন্ডে রক্ত পাম্প করার ক্ষমতা বাড়ে: একজন সাধারণ লোকের হৃৎপিন্ড প্রতি মিনিট ১৩০ মিলিলিটার রক্ত পাম্প করে। খেলাধুলা বা ব্যায়াম করার সময় রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে হৃৎপিন্ডের পাম্প করার ক্ষমতা বেড়ে যায়। এতে হৃৎপিন্ড সবল ও কর্মক্ষম হয় এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। 

৩. পালস রেট (Pulse rate) বৃদ্ধি পায় : একজন সাধারণ লোক পরিশ্রম করলে তার পালস রেট বেড়ে যায়। পুনরায় স্বাভাবিক হতে অনেক সময় লাগে। ফলে ক্লান্তি সহজে দূর হয় না। অপর দিকে একজন ভালো  খেলোয়াড় যখন খেলাধুলা বা ব্যায়াম করে তখন তার পালস রেট বেশি বাড়ে না এবং দ্রুত স্বাভাবিক হয়ে আসে। ফলে তার ক্লান্তি তাড়াতাড়ি দূর হয়।

৪. রক্ত চলাচল বাড়ে: খেলাধুলা বা ব্যায়াম করলে শরীরের রক্ত চলাচল বেড়ে যায়। ফলে সাধারণ লোকের চেয়ে মাংসপেশি, হৃৎপিন্ড ইত্যাদির কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি ও মজবুত হয়।

৫. রক্ত কণিকা : রক্তে তিন ধরনের কণিকা থাকে-

ক. লোহিত কণিকা খ. শ্বেত কণিকা গ. অনুচক্রিকা

ক. লোহিত কণিকা : শরীরের লোহিত কণিকার সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। পুরুষদেহে এক ঘন মিলিলিটার রক্তে প্রায় পঞ্চাশ লক্ষ এবং মহিলাদের রক্তে প্রায় পঁয়তাল্লিশ লক্ষ লোহিত কণিকা থাকে। এটি অস্থি মজ্জায় উৎপন্ন হয় ও ১২০ দিন পর প্লীহায় বিনষ্ট হয়। ব্যায়াম করলে লোহিত কণিকার সংখ্যাও বেড়ে যায় ও বেশি দিন বাঁচে। এটি হিমোগ্লোবিনের সহায়তায় দেহের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অক্সিজেন সরবারাহ করে এবং শরীরের সমস্ত তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রন করে।

খ. শ্বেত কণিকা : আমাদের শরীরে শ্বেত কণিকার সংখ্যা অনেক কম। এক মিলিলিটার রক্তে ছয় থেকে আট হাজার শ্বেত কণিকা থাকে। এরা বর্ণহীন ও নিউক্লিয়াসযুক্ত। এরা সাধারণত ১২-১৩ দিন বেঁচে থাকে। ব্যায়াম করলে এরা বেশিদিন বাঁচে ও সংখ্যা বেড়ে যায়। শ্বেত কণিকা রক্তে প্রবেশকারী শত্রুকে ঘিরে ধরে বিনষ্ট করে দেহকে রক্ষা করে। ফলে শারীরিক সক্ষমতা মজবুত ও শক্তিশালী হয়।

গ. অনুচক্রিকা : অনুচক্রিকা দেখতে ডিম্বাকার ও বিভিন্ন আকৃতি বিশিষ্ট অনেকটা ডিসকের মতো দেখতে। দেহের বৃহদাকার কোষ ভেঙ্গে অনুচক্রিকা সৃষ্টি হয়। দেহের স্থানে ক্ষত হলে সেখানে ৩ মিনিটের মধ্যে রক্ত জমাট বাঁধতে সাহায্য করে।

৬. শ্বাস প্রশ্বাস (Respiration): খেলাধুলা ও ব্যায়াম করার সময় ঘন ঘন শ্বাস প্রশ্বাস গ্রহণ করতে হয়। ফলে পর্যাপ্ত পরিমাণ অক্সিজেন গ্রহণ ও প্রশ্বাসের সাথে কার্বন ডাইঅক্সাইড বের হয়ে যায়। ঘন ঘন শ্বাস প্রশ্বাসের ফলে বুকের গভীরতাও বৃদ্ধি  পায়। ফলে শারীরিক ক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়।

৭. মাংসবেশি (Muscle) : শরীরে বিভিন্ন ধরনের মাংসপেশী থাকে। খেলাধুলা ও ব্যায়ামের ফলে মাংসপেশি সংখ্যায় বাড়ে না তবে আকৃতিতে বড় হয়, টিস্যুগুলো মোটা ও শক্তিশালী হয়। ফলে শারীরিক সক্ষমতাও অনেক বেড়ে যায়। ব্যায়ামের ফলে শরীরের যে বিভিন্ন পরিবর্তন বা বৃদ্ধি ঘটে তা শারীরিক সক্ষমতা অর্জনে সহায়তা করে।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
আব্দুল্লাহ আত তারিক
১৯ এপ্রিল, ২০২০ ০৯:৫৫ অপরাহ্ণ

অনেক সুন্দর নির্মান করার জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। আপনার এই মহৎ কর্ম সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে সহায়কের কাজ করবে। আপনার জন্য শুভকামনা। লাইক, এবং রেটিং ৫/৫ দিয়ে আপনার সাথেই আছি। সকল সম্মাননীয় শিক্ষক মন্ডলকে বিনীত অনুরোধ এই করোনার প্রাদুর্ভাবের সময়ে নিজে স্বাস্থ্য সচেতন হোন আপনার পরিবারকেও স্বাস্থ্য সচেতন হিসেবে গড়ে তুলুন।


মোঃ আব্দুল হক
২৭ এপ্রিল, ২০২০ ০৩:১০ অপরাহ্ণ

যাজাক-আল্লাহ-খাইর


মনির হোসেন হাওলাদার
১৯ এপ্রিল, ২০২০ ১২:৪৮ অপরাহ্ণ

ঘরে থাকুন পরিবারের সাথেই থাকুন, আপনি ভালো থাকলে ভালো থাকবে আপনার পরিবার ও দেশ। লাইক, কমেন্ট ও পুর্ন রেটিংসহ ভালবাসা রইল । আমার তৈরীকৃত কন্টেন্ট দেখার বিনীত অনুরোধ রইলো ।https://www.teachers.gov.bd/content/details/556283


মোঃ আব্দুল হক
২৭ এপ্রিল, ২০২০ ০৩:১০ অপরাহ্ণ

যাজাক-আল্লাহ-খাইর


সবুজ ভট্টাচার্য্য
১৯ এপ্রিল, ২০২০ ১২:৪৪ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ ধন্যবাদ এবং শুভকামনা রইল। আমার কনটেন্ট দেখে লাইক, রেটিং সহ মতামত প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।


মোঃ আব্দুল হক
২৭ এপ্রিল, ২০২০ ০৩:১০ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ


মোঃ নাজমুল হক
১৯ এপ্রিল, ২০২০ ০১:৩৪ পূর্বাহ্ণ

পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা আপনার জন্য, সেই সাথে ঘরে বসে আমার কনটেন্ট দেখে মন্তব্য প্রদানের অনুরোধ রইল।


মোঃ আব্দুল হক
২৭ এপ্রিল, ২০২০ ০৩:১০ অপরাহ্ণ

যাজাক-আল্লাহ-খাইর


মো: রজব আলী
১৮ এপ্রিল, ২০২০ ০৮:৩১ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা রইল ।শ্রেনী উপযোগী ও মান সম্মত কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য ধন্যবাদ। আমার এ সপ্তাহের কন্টেন্ট দেখার ও রেটিং সহ মতামত প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি


মোঃ আব্দুল হক
২৭ এপ্রিল, ২০২০ ০৩:১১ অপরাহ্ণ

যাজাক-আল্লাহ-খাইর


তাছলিমা আক্তার
১৮ এপ্রিল, ২০২০ ০৮:২৬ অপরাহ্ণ

সুন্দর ও শ্রেণি উপযোগী কনটেন্ট আপলোড করার জন্য লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন । ভালো থাকুন , সুস্থ থাকুন , নিজেকে নিরাপদে রাখুন । আমার আপলোডকৃত ১ম শ্রেণির বাংলা পাঠ ১৭ [ চ - ঞ ] [১]কনটেন্ট দেখে লাইক ও রেটিংসহ মূল্যবান মতামত প্রদানের অনুরোধ রইল ।


মোঃ আব্দুল হক
২৭ এপ্রিল, ২০২০ ০৩:১১ অপরাহ্ণ

যাজাক-আল্লাহ-খাইর