ভিডিও কনটেন্ট

হাসি সংক্রান্ত অধ্যায় || হাদিস শরীফ || Class 9 - 10 || By Nidm

মোঃ ফরিদ উদ্দিন ১৪ ডিসেম্বর,২০২০ ৬ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ০.০০ রেটিং ( )

মানুষের মধ্যে পারস্পারিক সম্পর্ক বৃদ্ধিতে হাসি গুরুত্বপূর্ণ এক ভূমিকা রাখে। হাসিই মানুষের সাথে মানুষের সম্পর্ককে সহজ করে দেয়। আন্তরিক হাসির অধিকারী একজন মানুষ বিপুল কিছু জয় করে নিতে পারে। রাসূল (সা.) সর্বদা হাসিমুখে থাকতেন। তাকে কখনোই কেউ অকারণে মুখ গোমড়া করে থাকতে দেখেননি। হাসি সম্পর্কে রাসূল (সা.) এর পাঁচটি হাদীস এখানে উল্লেখ করা হলো। ১. হযরত আবদুল্লাহ ইবনে হারিস (রা.) থেকে বর্ণিত, “আমি এমন কাউকেই দেখিনি যিনি রাসূল (সা.) এর থেকে অধিক হাসিমুখে থাকতেন।” (তিরমিযি) ২. হযরত জরীর ইবনে আবদুল্লাহ (রা.) থেকে বর্ণিত, “আমার ইসলাম গ্রহণের পর আল্লাহর রাসূল (সা.) তার সাথে সাক্ষাতের জন্য আমার অনুমতিকে কখনোই প্রত্যাখ্যান করেননি এবং কখনোই হাসি ছাড়া আমার সাথে দেখা করেননি।” (মুসলিম) ৩. হযরত আবু হুরাইরা (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসূল (সা.) বলেছেন, “তোমার সম্পদ দিয়ে কখনোই তুমি লোকদের সন্তুষ্ট করতে পারবেনা বরং তোমার প্রফুল্ল চেহারা ও উত্তম চরিত্রের মাধ্যমেই তুমি তাদের সন্তুষ্ট করতে পারবে।” (আল-হাকীম) ৪. হযরত আবু জর (রা.) বলেন, রাসূল (সা.) বলেছেন, “কোনো উত্তম কাজকেই অবহেলা করোনা (যত ছোটই হোক না কেন) যদি তা তোমার ভাইয়ের সাথে হাসিমুখে সাক্ষাতও হয়।” (মুসলিম) ৫. হযজর আবু জর (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসূল (সা.) বলেছেন, “তোমার ভাইয়ের প্রতি তোমার হাসিও তোমার জন্য সাদকা।” (তিরমিজি) সুতরাং, আমাদের সকলের উচিত আন্তরিক হাসির মত সাদাকার মাধ্যমে আমাদের মধ্যকার সম্পর্কগুলোকে সহজ করে নেওয়া। হাসির মাধ্যমেই আমাদের মধ্যে গড়ে উঠা দেওয়ালের পতন হয় এবং আমরা একে অপরের কাছাকাছি আসতে পারি। আল্লাহ আমাদের সকলকে আন্তরিক হাসির অধিকারী হওয়ার সুযোগ করে দিন।


মতামত দিন